ভোলায় এক যুবতী গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১

ভোলায় এক যুবতী গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১

চাকরি দেয়ার নাম করে ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার দক্ষিণ আইচা থানার চরমানিকা গ্রামের ২০ বছরের এক যুবতীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। আজ রোববার ধর্ষণের ঘটনায় যুবতী বাদি হয়ে চরফ্যাসন থানায় ৩ জনকে চিহ্নিত করে নারী ও শিশু নির্যাতন একটি মামলা দায়ের করেন।

সেই জের ধরে ধর্ষণের মূল হোতা আহম্মদ (২৫) কে চরফ্যাশন পৌর ৮নং ওয়ার্ডের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার আহম্মদ চরফ্যাশন পৌর ৮নং ওয়ার্ডের ফজলু কসাইয়ের ছেলে।

পুলিশ জানায়, চরমানিকা গ্রামের ২০ বছরের এক যুবতীকে চরফ্যাশন পৌর সভার ৮নং ওয়ার্ডের সালমা চাকরি দেয়ার কথা বলে ১০ হাজার টাকা গ্রহণ করেছে। গত শনিবার বিকালে সালমা তার নিজ বাড়িতে যুবতীকে দেখা করতে বলে। পরবর্তীতে সালমার বাড়িতে যুবতীটি বেড়াতে গেলে সেখানে আহম্মদসহ (২৫)  ৩ জন জোর করে পালাক্রমে তাকে ধর্ষণ করে। 

স্থানীয়দের অভিযোগ, সালমা তার বাসায় দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন অপকর্ম করে চলেছে। কেউ এই বিষয়ে কথা বললে তাদের ওপর চড়াও হয় সালমা।

এ তথ্য নিশ্চিত করে চরফ্যাশন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সামসুল আরেফিন বলেন, ‘পৌর সভার ৮নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা সালমা নিজ ঘরে নিয়ে চরমানিকা গ্রামের এক যুবতীকে গণধর্ষণে সহায়তা করেছে। তাকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। গণর্ধষনের মূল হোতা আহম্মদসহ ৩ জনকে সনাক্ত করে নারী ও শিশু দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামী আহম্মদকে সোমবার সকালে আদালতে প্রেরণ করা হবে। বাকী আসামীদেরকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যহত রয়েছে।’

নাবা/ডেস্ক/কৌশিক


রিলেটেড নিউজঃ

    মতামত দিন