রাজবাড়ীতে বাড়ছে ডেংগু রোগী সংখ্যা

রাজবাড়ীতে বাড়ছে ডেংগু রোগী সংখ্যা

রাজবাড়ীতে প্রতিদিনই বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় ১০ জনসহ জেলায় আজ শনিবার সকাল পর্যন্ত ৪৬ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে ১৬ জন ভর্তি রয়েছে হাসপাতালে। এতে করে সাধারণ মানুষ, হাসপাতালে অবস্থানরত অন্যান্য রোগী ও তাদের স্বজনদের মাঝে দেখা দিয়েছে ডেঙ্গু আতঙ্ক।

এদিকে ডেঙ্গু পরীক্ষার জন্য ১২০ টি কীট দেওয়া হয়েছে রাজবাড়ীতে। যা বর্তমানে প্রয়োজনের তুলনায় অত্যন্ত কম বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ঠরা। তবে ডেঙ্গু পরীক্ষার জন্য আসা কীট গুলো রাজবাড়ী সদর হাসপাতালসহ জেলার অন্যান্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গুলোতে রোগী অনুযায়ী ভাগ করে দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ১২ জন, বালিয়াকান্দিতে ২ জন, গোয়ালন্দ ও পাংশায় ১ জন করে রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এছাড়া ২৫ জন হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গুলোর ইনডোর ও আউটডোরে চিকিৎসা নিয়ে বাড়ীতে ফিরে গেছেন বলে হাসপাতাল সূত্রে জানাগেছে। এর মধ্যে বেশির ভাগ রোগী ঢাকা ফেরত।

ডেংগুর কীট আসার পর থেকেই বিনামূল্যে ডেংগু পরীক্ষা শুরু করেছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি রোগীদের চিকিৎসা এবং দেওয়া হচ্ছে সচেতনতামূলক পরামর্শ।

রাজবাড়ীর সিভিল সার্জন ডা. মো. মাহফুজার রহমান সরকার বলেন, শনিবার সকাল পর্যন্ত  জেলার সরকারী হাসপাতাল গুলোতে মোট ৪৬ জন ডেংগু রোগী শনাক্ত করা গেছে। এর মধ্যে বর্তমানে ১৬ জন ভর্তি রয়েছে এবং বাকিরা ইনডোর ও আউটডোরে চিকিৎসা নিয়ে বাড়ী ফিরে গেছেন। ডেঙ্গু সনাক্তে বিনামূল্যে পরীক্ষা চলছে। সারাদেশে এক সঙ্গে ডেঙ্গু প্রভাব পড়ায় কীট একটু কম এসেছে। তবে এখন থেকে নিয়মিত কীট আসবে। এতে করে কোন ডেঙ্গু শনাক্তে কোন সমস্যা হবে না। এছাড়া ডেঙ্গতে আক্রান্ত বেশির রোগীই ঢাকা ফেরত। তবে এখন পর্যন্ত রাজবাড়ীতে ডেঙংগুতে আক্রান্ত কোন রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক না, সবাই স্বাভাবিক রয়েছে।


নাবা/ডেস্ক/ওমর

    মতামত দিন