বদলে গেছে পঞ্চগড়ের ৩৬ বিলুপ্ত ছিটমহল

  • প্রকাশিতঃ 2019-07-31 11:36:15
বদলে গেছে পঞ্চগড়ের ৩৬ বিলুপ্ত ছিটমহল

আজ ৩১ জুলাই মধ্য রাতে ছিটমহল বিলুপ্তের ৪ বছর পূর্ণ হবে । মাত্র চার বছরের মাথায় পঞ্চগড়ের বিলুপ্ত ৩৬ টি ছিটমহলে হয়েছে অভূতপূর্ব উন্নয়ন । ঘরে ঘরে জ্বলছে বিজলী বাতি, চারিদিকে চলছে রাস্তা পাকাকরণের কাজ, গড়ে উঠেছে নতুন নতুন স্কুল-কলেজ, প্রতিটি পরিবার ব্যবহার করছে স্যানিটারী ল্যাট্রিন সহ নলকূপ, দল বেধে শিশুরা ছুটছে স্কুলের দিকে এমনই চিত্র এখন পঞ্চগড়ের বিলুপ্ত ছিটমহলগুলোতে। দীর্ঘ ৬৮ বছরের বঞ্চনা অবসানের মাত্র চার বছরের মাথায় বদলে গেছে বিলুপ্ত ছিটমহলের মানুষের জীবনচিত্র। বাংলাদেশের উড়ন্ত পতাকার মতোই মুক্ত বিহঙ্গ এখন শিশুদের দল ।

২০১৫ সালের ৩১ জুলাই বাংলাদেশে ও ভারতের মধ্যে বিনিময় হয় ছিটমহল।পঞ্চগড়ের ৩৬ টি ছিটমহলের প্রায় ২০ হাজার মানুষের জন্য সরকারি উদ্যোগে গত চার বছরে দেয়া হয়েছে ঘরে ঘরে বিনামুল্যে বিদ্যুৎ সংযোগ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে থাকা ভারতীয় ১১১টি ছিটমহল বাংলাদেশের ভূখন্ডের মানচিত্র পায় পূর্ণতা।

বাংলাদেশী ভূখন্ডে যোগ হয় ১৭ হাজার ১৬০ দশমিক ৬৩ একর জমি। ৬৮ বছরের অবরুদ্ধ জীবন থেকে মুক্তি ঘটে। পিছিয়ে পড়া ছিটমহলবসীদের উন্নয়নে সরকার হাতে নিয়েছে ব্যাপক পরিকল্পনা।

গত চার বছরে ঘরে ঘরে বিনামুল্যে বিদ্যুৎ সংযোগ, শিক্ষা বিস্তারে ৩২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপন, স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র নির্মান, আশ্রয়ন প্রকল্প, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনির সহায়তা, কৃষি সহায়তা, জমির মালিকানা হস্তান্তর, ভোটার নিবন্ধন, মসজিদ মন্দির, হাট-বাজার, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে রাস্তা-ঘাট, সেতু-কালর্ভাট নির্মানসহ সরকারের সকল বিভাগের নাগরিক সেবা প্রদান করায় বদলে গেছে তাদের এলাকার চিত্র ও সামাজিক অবস্থা।

দৃশ্যপট পরিবর্তন হয়েছে। উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা ও আধুনিক প্রযুক্তির ছোয়ায় আর্থ-সামাজিক অবস্থার ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে। ছিটমহলের নতুন বাংলাদেশীদের মুল স্রোতধারায় নিয়ে আসতে সরকার অগ্রাধিকার ভিত্তিতে নানামূখী উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করছে।

বিলুপ্ত ছিটমহলের নাগরিকরাও এ ব্যাপারে তাদের প্রশান্তির কথা জানিয়েছেন । তারা সরকারের কর্মকান্ড এবং প্রধানমন্ত্র্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতাও জানিয়েছেন । তবে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো এখনো এমপিও ভুক্তি না হওয়ায় ন্যুনতম শর্তে এবং দ্রুততম সময়ে এমপিও ভ’ক্তির দাবী জানিয়েছেন তারা ।বর্তমান সরকার ছিটমহলগুলোর আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ২০০ কোটি টাকা বরাদ্ধ দিয়েছে। বর্তমানে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ চলছে।

সাবিনা ইয়াসমিন , জেলা প্রশাসক, পঞ্চগড় সরকারের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। উন্নয়ন কর্মকান্ডের মাধ্যমে বিলুপ্ত ছিটমহলবাসীদের জীবনযাত্রা আমুল পরিবর্তন শুরু হয়েছে। সরকারের সকল প্রকার উন্নয়ন কার্যক্রম অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ধারাবাহিকভাবে সম্পন্ন করা হচ্ছে। আগামীতে আরও উন্নয়ন হবে ।

 

নাবা/ডেস্ক/হাফিজ

    মতামত দিন