বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে পদ্মার পানি

  • প্রকাশিতঃ 2019-07-23 22:33:32
বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে পদ্মার পানি

বন্যার শুরু থেকে এখনও পানিবন্দি রয়েছে গোয়ালন্দ উপজেলার তিনটি, রাজবাড়ী সদর উপজেলার দুটি, কালুখালী উপজেলার দুটি ও পাংশা উপজেলার দুটি মোট ৯ টি ইউনিয়নে অন্তত ৩০ হাজার মানুষ।

পানিবন্দি মানুষেরা জানান, জেলা প্রশাসন থেকে ৯ ইউনিয়নের মধ্যে শুধু বরাট ইউনিয়নের ১০০ টি পরিবারের মধ্যে শুকনো খাবার দেওয়া হয়েছে।

এখন বন্যা কবলীত এলাকায় দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানি ও পশুর খাদ্যের সংকট। সরেজমিনে রাজবাড়ী সদর উপজেলার বরাট ইউনিয়নের নয়ন সুখ, গোয়ালন্দ উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের কাওয়াজানি ও অন্তার মোড়, দৌলতদিয়া ইউনিয়নের সাত্তার মেম্বারের পারা ঘুরে দেখা যায় এসব এলাকায় অন্তত ৩০০ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পরেছে।

গোয়ালন্দ উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের অন্তার মোড় এলাকায় শহর রক্ষা বেরিবাধের উপর আশ্রয়ের জন্য ঘর তৈরি করছেন অন্তত ২০ টি পরিবার।

২ ও ৩রং ফুটেজে বন্যার দৃশ্য ও ভুক্তবুগিদের ভক্্রপপ ও ঠোট ভাকলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমজাদ হেসেনের সিংক রয়েছে।রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম বলেন, রাজবাড়ীর শহর রক্ষাবাধের বাইরে কিছু এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এবারের বন্যা মোকাবেলায় জেলা প্রশাসনের পর্যাপ্ত প্রস্তুুতি রয়েছে।

নদী ভাঙগন ঠেকাতে পানি উন্নয়ন বোর্ড জিও ব্যাগ ফেলছে। জেলার আশ্রয়ন সেন্টারগুলোকে প্রস্তুত করা হয়েছে। সেই সাথে পর্যাপ্ত শুকনা খাবার, চাল ও নগদ অর্থ মজুদ আছে।

 

নাবা/ডেস্ক/হাফিজ

    মতামত দিন