বুদ্ধের আদর্শকে ধারণ করুক তার অনুসারীরা, বিশ্বের সবাই...

  • প্রকাশিতঃ 2019-05-18 21:25:56
বুদ্ধের আদর্শকে ধারণ করুক তার অনুসারীরা, বিশ্বের সবাই...

রাজপ্রাসাদের বিত্তবৈভব, সুখ ও স্বজনের মায়া, সংসার জীবন ত্যাগ করে জন্ম, জরা, ব্যাধি ও মৃত্যু-এ চারটির কারণ উদঘাটনের জন্য বুদ্ধ গৃহত্যাগ করেন। দীর্ঘ ৬ বছর কঠোর সাধনার পর সিদ্ধার্থ গৌতম বৈশাখের আজকের দিনের পূর্ণিমার রাতের স্নিগ্ধ শুভ্র আলোর মতো  উদ্ভাসিত হয়ে জগতে আবিভূর্ত হন, আর সে আলোয় তিনি আলোকিত করলেন  জগদ্বাসীকে।

বৈশাখের সেদিনের পূর্ণিমার স্নিগ্ধ শুভ্র আলোয় বোধিপ্রাপ্ত হন। আজ বুদ্ধের মহান জীবনের প্রধান ত্রি-স্মৃতি বিজড়িত শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা।

বুদ্ধ বলেন, ‘আমিই জগতে অগ্র, জ্যেষ্ঠ ও শ্রেষ্ঠ। ইহাই আমার শেষ জন্ম; এরপর আর আমার জন্ম হবে না। তাই আমাদের উচিত লোভ, দ্বেষ, মোহ ত্যাগ করা। মানুষের কল্যাণে নিজেকে নিযুক্ত করা।'

অহিংসা, পরোপকার, সৌভাতৃত্ব-সম্প্রীতি, ঐক্যতা ও মৈত্রী-করুণা প্রেমে জীবন অতিবাহিত করা। কিন্তু মিয়ানমারের কিছু ভন্ড ধার্মিক ধর্মের নামে রোহিঙ্গা মুসলমাদের ওপর চালাচ্ছে নৃসংশ নির্যাতন। ধর্মের নামে ধর্ষণ, হত্যা, গৃহহীন করা কিছুই বাদ যাচ্ছেনা মিয়ানমারের রোহিঙ্গা জাতি গোষ্টির ওপর।

এ অধর্ম মহামতি গৌতম বুদ্ধের আদর্শের পরিপন্থি। আজ শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমায় সারা বিশ্বের বৌদ্ধ ধর্মের অনুসারী সহ সবাই জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে গৌতম বুদ্ধের অহিংসার আদর্শকে ধারণ করুক। কেউ যেন আদর্শচ্যুত না হয় সে প্রার্থনা করি। ‘বুদ্ধং সরনং গোচ্ছামি। অর্থাৎ জগতের সকল প্রাণী সুখি হোক। সকলেই মঙ্গল লাভ করুক।

তানিয়া রাত্রি

    মতামত দিন