অনির্দিষ্টকালের জন্য সিনেমা হল বন্ধ ঘোষণা

 আগামী ১২ এপ্রিল থেকে দেশের সব প্রেক্ষাগৃহ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে,হল মালিকদের সংগঠন চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি। বিদেশি ছবি আমদানির নীতিমালা সহজের পাশাপাশি দেশীয় ছবি নির্মাণ বাড়ানোর দাবিতে এ কর্মসূচি দেয়া হয়।

বুধবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলন করে মালিকদের সংগঠন চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি সভাপতি ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ এ ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, যখন থেকে আমরা উপমহাদেশীয় ছবি আমদানির দাবি করে আসছি, তখন থেকে আমাদের আশ্বস্ত করা হচ্ছে ভালো পরিচালক আসছেন। আমাদের দেশীয় চলচ্চিত্র শিল্প ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। কিন্তু বাস্তবে চিত্র ভিন্ন। গত বছর দেশীয় ছবির নির্মাণ সংখ্যা ৩৫টি।

১ হাজার ২৩৫ থেকে নেমে সিনেমা হলের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৭৪টি। এ বছরের প্রথম দুই মাসে কোনও চলচ্চিত্র মুক্তি পায়নি। পরে যা মুক্তি পেয়েছে তা দর্শক টানতে ব্যর্থ হয়েছে। হলগুলো তাই মোটামুটি অচল অবস্থায় আছে।

তিনি আরও বলেন, হলে সিনেমা নেই। দেশে ছবি তৈরি হচ্ছে না। বিদেশের ছবিও সহজভাবে আনা যাচ্ছে না। কিন্তু, আমরা যারা আছি তাদের হলগুলো সচল রাখতে সরকারের সুদৃষ্টি খুব প্রয়োজন।

উচ্চহারের বিদ্যুৎ বিল, শ্রমিক কর্মচারীর বেতনসহ অন্যান্য খরচের মাত্রা দিন দিন বাড়তে থাকায় প্রতিটি সিনেমা হল মালিকদের লোকসানের পরিমাণ বাড়ছে। বাধ্য হয়ে অনেক হল মালিক এই ব্যবসা বন্ধ করে দিয়েছেন।

নওশাদ বলেন, সংগঠনের পক্ষ থেকে আগে তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলাপ আলোচনা করেও তেমন কোনও সুরাহা পাননি। তাই পর্যাপ্ত ও মানসম্মত দেশীয় ছবির অভাবে সিনেমা হল বাঁচাতে বিদেশি ছবি দেশে আনতে সাফটা চুক্তির নীতিমালা আরও সহজ করতে হবে।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, সমিতির উপদেষ্টা সুদীপ্ত কুমার দাস, প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক মিয়া আলাউদ্দিনসহ সংগঠনের সিনিয়র নেতারা।

নাবা/ডেস্ক/হাফিজ