সীমান্ত দেয়াল নির্মাণে ১০০ কোটি ডলার এর অনুমোদন দিল পেন্টাগন

নাগরিক বার্তা: যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্তে নতুন দেয়ালের একাংশ নির্মাণের জন্য সেনা প্রকৌশলীদের ১০০ কোটি ডলার দেবে পেন্টাগন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষিত জরুরি অবস্থার আওতায় এটাই প্রথম তহবিল। মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের প্রশ্নে অনড় অবস্থানে থাকা ট্রাম্প কংগ্রেসকে পাশ কাটিয়ে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছিঅেলন।

মেক্সিকো সীমান্তে স্থায়ী দেয়াল নির্মাণ ছিল ট্রাম্পের অন্যতম নির্বাচনি প্রতিশ্রুতি। নির্মাণ কাজ শুরু করতে চলতি বছর কংগ্রেসের কাছে ৫৭০ কোটি ডলার চেয়েছিলেন তিনি। তবে সে টাকা দিতে সম্মত না হওয়ায় কংগ্রেসের অনুমোদন দেওয়া অস্থায়ী বাজেট বরাদ্দে স্বাক্ষর করেননি ট্রাম্প। সেকারণে ৩৫ দিন অচল হয়ে থাকে মার্কিন কেন্দ্রীয় সরকারের একাংশ। সর্বশেষ অস্থায়ী বাজেটে স্বাক্ষর করে সরকার সচল রাখলেও তাতে দাবিকৃত অর্থ বরাদ্দ না পেয়ে ১৫ ফেব্রুয়ারি জরুরি অবস্থা ঘোষনা দেন ট্রাম্প।

সোমবার মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দফতর পেন্টাগন এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, মার্কিন ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রী প্যাট্রিক শানাহান যুক্তরাষ্ট্রের আর্মি কর্পস অব ইঞ্জিনিয়ার্স এর কমান্ডারকে পরিকল্পনা শুরুর অনুমতি দিয়েছেন। এর জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং শুল্ক ও সীমান্ত টহলদার বাহিনীর কাছে ১০০ কোটি ডলার হস্তান্তর করা হয়েছে।

সড়ক নির্মাণ, সীমান্ত দেয়াল নির্মাণ এবং যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক সীমান্তে মাদক পাচার করিডোরগুলো বন্ধ করতে বাতি স্থাপনের ক্ষমতা প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের রয়েছে। তবে ডেমোক্র্যাট সিনেটররা অভিযোগ করেছে অর্থ অনুমোদনের ব্যাপারে কংগ্রেসকে অবহিত করার আগে যথাযথ কমিটির কাছ থেকে অনুমতি নেয়নি পেন্টাগন।

শানাহানের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে সিনেটররা লিখেছেন, ‘একইসঙ্গে তহবিল হস্তান্তর করা এবং তা করতে গিয়ে কংগ্রেসীয় প্রতিরক্ষা কমিটির অনুমোদন না নেওয়া এ দুইটি বিষয় অনুমোদন বিধির লঙ্ঘন।

নাবা/ডেস্ক/তানিয়া রাত্রি/