সাড়ে চারশত বছরের পুরনো গির্জাটি এখন জামে মসজিদ

পর্যটকদের স্বর্গরাজ্য সিসিলি দ্বীপপুঞ্জের রাজধানীতে অবস্থিত প্রাচীনতম বন্দর নগরী ইতালির পালেরমোতে চারশত বছরের পুরনো গির্জা এখন রূপান্তরিত হয়েছে জামে মসজিদে।

ঐতিহাসিক স্থাপনা শৈল্পীক কারুকাজে নির্মিত ক্রসিপিচ্ছা দি লুক্কা নামের এই চার্চ এখন রূপান্তরিত হয়েছে আল ফালাহ জামে মসজিদে। সে সময় এই সিসিলি দ্বীপপুঞ্জ মুসলিম শাসনের অধীনে ছিল। ইতালির দক্ষিণ উপকূলীয় অঞ্চল সিসিলি দ্বীপপুঞ্জের মুসলিম শাসনামলের চারশত বছর হয়তো মানুষের স্মৃতির অতলে হারিয়ে গেছে।

এই সিসিলি দ্বীপটি বৃহদাকার মুসলিম জনসংখ্যার আবাস্থল। এক সময় এই সিসিলিতে মুসলমানদের তিনশত পঞ্চাশটির মত মসজিদ ছিল কালের স্রোতে অনেক মসজিদ নিশ্চিহ্ন করা হয়েছে। কিছু মসজিদ ভেঙে গির্জায় পরিণত হয়েছে।

বাঙ্গালী অধ্যুষিত পালেরমো মুসলমানের সংখ্যা প্রায় ত্রিশ হাজার হলেও বাংলাদেশীর বসবাস পনের হাজারের অধিক ।

ক্রসিপিচ্ছ দি লুক্কা এই চার্চটি প্রায় পঞ্চাশ বছর পরিত্যাক্ত অবস্থায় থাকার পর একজন ইতালিয়ান নাগরিক ক্রয় করে ভাড়া দিতে চাইলে কমিউনিটির কয়েকজন গির্জাটি প্রথমে ভাড়া নিয়ে মসজিদ করার পরিকল্পনা করেন।

ইসলামী কালচারাল সেন্টার নামে চুক্তি করেন কমিউনিটির প্রবীণ মুরব্বী হাজি মুহাম্মদ হাবিবুল্লা।

আইনি জটিলতা থাকায় একসময় প্রশাসন এই ইসলামী কালচারাল সেন্টার বন্ধ করে দেয়। থেমে থাকেনি মসজিদ নির্মানের অদম্য প্রচেষ্টা। বাঙ্গালী কমিউনিটির সার্বিক সহযোগিতায় গির্জাটি ক্রয় করতে সক্ষম হয়েছেন স্থানীয় মুসল্লিরা।

দীর্ঘ এক যুগের আইনি লড়াই শেষে আদালত সাংস্কৃতিক স্থাপনা রক্ষা আইন ব্যবহার করে মসজিদের বাহিরের দেয়ালে কোন ধরণের সংযোজন বিয়োজন করা যাবেনা এই শর্তে মুসলমানদের ইবাদতের জন্য ইসলামী কালচারাল সেন্টরের পরিবর্তে মসজিদ প্রতিষ্ঠার অনুমতি প্রদান করে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মুসলমানরা এই মসজিদে নামায পড়লেও মূলত বাংলাদেশীরা মসজিদটি ক্রয় করতে সক্ষম হয়েছেন।

মসজিদ কমিটির সভাপতি হাজি হাবিবুল্লাহ বলেন, অনেক সাধনা আর কষ্টের বিনিময়ে আমরা এই গির্জাটি ক্রয় করেছি। এখন আপনাদের সকলের সার্বিক সহযোগিতা পেলে একটি পুর্নাঙ্গ মসজিদ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হবে এবং আমাদের নতুন প্রজন্মরা ইসলামি শিক্ষায় শিক্ষিত হতে পারবে। এর ফলে প্রবাসে বহুজাতিক সমাজে দ্বীন ইসলাম প্রসারিত হবে।

এই মহতি কাজকে এগিয়ে নিতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন তিনি।
নাবা/সেন্ট্রাল ডেস্ক/কেএইচ/