সবজির দাম কম হলেও মাছ-মুরগির দাম বাড়তি

আমাদেরকে সুস্থ থাকার জন্যে মাছ, মাংস, সবজি প্রতিদিনই খেতে হয়। কিন্তু বাজারে এই সকল প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম দিন দিন বেড়েই চলেছে। সবজির দাম কম হলেও ব্রয়লার মুরগি, ডিম ও মাছ এই গুলোর দাম বাড়তি।

আজ রাজধানীর কারওয়ানবাজারে করলা, চিচিঙ্গা, ঝিঙা, পটল, ঢেঁড়শ ও বরবটি বিক্রি হয়েছে প্রতি কেজি ৪০ টাকা থেকে ৬০ টাকার মধ্যে। সৃপ্তাহ দুয়েক আগে পটল ও ঢেঁড়শ ছাড়া অধিকাংশ সবজিই প্রতিকেজি ৮০ টাকা থেকে ৯০ টাকায় বিক্রি হয়।

তবে এদিন রাজধানীর মিরপুর বড়বাগ কাঁচাবাজারে প্রতিকেজি চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, করলা ৭০ টাকা, বরবটি ৭০ টাকা, পটল ৬০ টাকা, ঢেঁড়শ ৬০ টাকায় বিক্রি হয়।

গত ফেব্রুয়ারি মাসের ২০ তারিখের পর থেকেই প্রতিকেজি ১১০ টাকা থেকে বাড়তে শুরু করে। সপ্তাহ ধরেই এই মুরগি বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ১৬০ টাকা থেকে ১৬৫ টাকায়।

একইভাবে গত দুই মাস ধরে হাঁস, দেশি মুরগি ও ফার্মের মুরগির ডিমের দাম বাড়তি রয়েছে। কারওয়ানবাজার ও বড়বাগে প্রতি ডজন ফার্মের মুরগির ডিম ১০৫ টাকা থেকে ১১০ টাকা, হাঁসের ডিম ১৫০ টাকা এবং দেশি মুরগির ডিম ১৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

খুচরা বাজারে দেশি পেঁয়াজ ও আমদানি করা পেঁয়াজ প্রতিকেজি ২৫ থেকে ৩০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। আমদানি করা রসুন বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ৮৫ টাকায়।

চলতি সপ্তাহে মাছের বাজারে রুই-কাতলের দাম কিছুটা বাড়তি দেখা গেছে। বড়বাগে এক কেজির চেয়ে একটু ছোট রুই বিক্রি হয় ২৮০ টাকা থেকে ৩০০ টাকায়, যা সাধারণত ২২০ থেকে ২৫০ টাকার মধ্যে বিক্রি হয়ে থাকে। কাতল মাছও বিক্রি হয়েছে প্রতিকেজি ৩০০ টাকা থেকে সাড়ে ৩০০ টাকায়।

এছাড়া শিং মাছ কেজি প্রতি ৫০০ টাকা, মাগুর ৫০০ টাকা, মাঝারি আকারের চিংড়ি ৪০০ টাকা, এক কেজির চেয়েও কিছুটা ছোট ইলিশের জোড়া ৮০০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে বড়বাগে।

নাবা/ডেস্ক/ইসহাক/