লাল-সবুজের প্রিয় বাংলাদেশ…

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে প্রিয় রঙ লাল-সবুজ ধারণ করেছে দেশবাসী। তারা স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের প্রতি দেখাচ্ছে অকৃত্রিম ভালোবাসা ও অশেষ শ্রদ্ধা।  দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ভবনে দৃষ্টিনন্দন আলোকসজ্জা ছাড়াও নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। বিভিন্ন রাস্তার মোড়ে মোড়ে সাজানো হয়েছে লাল সবুজ পতাকা দিয়ে। সরকারী ও বেসরকারী ভাবে বিশেষ ভাবে সাজসজ্জা করা হয়েছে বিভিন্ন ভবন ও প্রতিষ্ঠানে।

দিনটি সরকারি ছুটি হওয়ায় অনেকেই বিভিন্ন জায়গা ঘুরে ঘুরে উপভোগ করেছেন। দেশের সব সরকারি-বেসরকারি টেলিভিশন এবং রেডিওতে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। বিশেষ ক্রোড়পত্র বের করেছে পত্রিকাগুলো।

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে সকালেই সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার সকাল ৬টার দিকে জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন রাষ্ট্রপতি। এর পর পরই পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন প্রধানমন্ত্রী। তারা চলে যাবার পর সেখানে সাধারণ মানুষের ঢল নামে। হাতে হাতে দেখা যায় লাল-সবুজ পতাকা। কারো কারো পোষাকেও লাল-সবুজে মাখামাখি।

দিবসটি উপলক্ষে সকালে শিশু-কিশোর সমাবেশে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে আসা শিক্ষার্থীরা মনোমুগ্ধকর ডিসপ্লে পরিবেশনার মাধ্যমে দেশের সংস্কৃতি ও জীবনযাত্রা তুলে ধরেন। বিকেল তিনটায় রাজধানীর হাতিরঝিলে নৌকাবাইচের আয়োজন করা হয়েছে।

১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীকে লক্ষ্য করে প্রথম বুলেট ছুঁড়েছিলেন রাজারবাগের সাহসী পুলিশ সদস্যরা। যা ছিল স্বাধীনতা যুদ্ধে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে প্রথম প্রতিরোধ। এদিন প্রথম প্রতিরোধ যুদ্ধে শহীদ হন অনেক পুলিশ সদস্য। স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে শহীদ পুলিশ সদস্যদের সম্মানে রাজারবাগে নির্মিত স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এছাড়াও দিবসটি উপলক্ষে বঙ্গভবনে সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়েছে। সেখানে প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা উপস্থিত থাকবেন। দিবসটি উপলক্ষে স্মারক ডাক টিকিট উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া ডাক অধিদফতরের ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে গণভবনে।

নাবা/ডেস্ক/এনএম