রাজধানীতে বাটা ও ইনফিনিটিকে জরিমানা

বাংলাদেশে নামি দুটি ব্র্যান্ড বাটা ও ইনফিনিটি। জুতার জগতে বাটার সুনাম কয়েক যুগের। আর মেগামল ইনফিনিটি বর্তমানে সবার পরিচিত। তবে এদের শোরুমেও মিললো ত্রুটি। প্রতিষ্ঠান দুটির শোরুমে পাওয়া গেলো বিদেশি পণ্য। তাও আবার আমদানিকারকের স্টিকারবিহীন। এ কারণে প্রতিষ্ঠান দুটিকে জরিমানা করা হয়েছে।

আজ শনিবার (২৫ মে) রাজধানীর মোহাম্মদপুরের তাজমহল রোড ও কৃষি মার্কেট এলাকায় বিশেষ অভিযান চালায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। এসময় সেখনাকার শোরুমে এ জরিমানা করা হয়।

ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অভিযান পরিচালনা করেন অধিদফতরের সহকারী পরিচালক ফাহমিনা আক্তার এবং মাগফুর রহমান।

মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার সাংবাদিকদের বলেন, বাটা ও ইনফিনিটি নামকরা প্রতিষ্ঠান। ব্র্যান্ড হিসেবে এসব প্রতিষ্ঠানের ওপর মানুষের ভরসা রয়েছে। কিন্তু তারা বিদেশি পণ্য বিক্রি করছে। তাও পণ্যের গায়ে আমদানিকারকের স্টিকার নেই। যা ভোক্তা অধিকার আইন অনুযায়ী দণ্ডনীয়। এ অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ এর ৪৫ ধারা অনুযায়ী বাটা ও ইনফিনিটি প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

এ ছাড়া ওই অভিযানে কিডস কর্নারকে ১০ হাজার, ইভা সুপার শপকে ১৫ হাজার, বিক্রমপুর মিষ্টান্ন ভাণ্ডারকে ৫০ হাজার টাকা, মেসার্স জহির জেনারেল স্টোরকে ৫ হাজার, মুন্না মৎস্য ভাণ্ডারকে ২ হাজার, হক বেকারিকে ১০ হাজার, সুপতি জেনারেল স্টোরকে ৫০ হাজার, অরেঞ্জকে ১০ হাজার টাকা ও সিপি ফাইভ স্টারকে ২০ হাজার, মিলন জেনারেল স্টোরকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

নাবা/২৫মে/তারেক