মায়ের সাথে ঝগড়া করে কিশোরীর আত্ম হননের চেষ্টা

চাঁদপুর: চাঁদপুর ফরিদগঞ্জ উপজেলায় সৎ মায়ের সাথে ঝগড়া করে ঘরের আর আর সাথে ওড়না পেচিয়ে আক্তার (১৫) নামে এক কিশোরী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে।

শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় ফরিদগঞ্জ উপজেলার ৭ নং পাইকপাড়া ইউনিয়ন শড়লা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পরেই সাথে সাথেই ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে তাকে বাড়ির লোকজন উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে।

এ সময় হাসপাতলে আনার পর কিশোরী ছটফট করতে দেখা যায়। হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার তার অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে রেফার করে।

কিশোরীর পরিবার সূত্রে জানা যায় , তার মা রোকিয়া বেগম মারা যাওয়ার পর বাবা জাকির ভাইয়া দ্বিতীয় বিয়ে করে। তার বাবা দীর্ঘ ১৫ বছর যাবত ওমান প্রবাসী।
সৎ মা খাইরুন নেসা ও কিশোরী হাসিনা এবং তার বোন বাড়িতে আলাদা ভাবে থাকতেন।

ঘটনার দিন তার বাবা পরিবারের নিত্য প্রয়োজনীয় কিছু জিনিসপত্র লোক মারফত বাড়িতে পাঠায়।

সেই জিনিসপত্র নিয়ে সৎ মা খায়রুন নেসা নিজে তার ঘরে নিয়ে যায়। এ নিয়ে সৎ মা ও কিশোরী হাসিনার সাথে বাক-বিতণ্ডা সৃষ্টি হয়।

সৎ মা খাইরুন নেসা কিশোরী হাসিনার গায়ে হাত তুললে সে অভিমান করে ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

এ সময় তার ছোট বোন রোজিনা দেখতে পেয়ে চিৎকার করলে বাড়ির লোকজন ঘরে ঢুকে ঝুলন্ত অবস্থায় হাসিনাকে উদ্ধার করে। পরে তাকে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতাল এ নিয়ে আসে।

বর্তমানে কিশোরী  হাসিনা আক্তার এর অবস্থা আশঙ্কাজনক।

নাবা/এমএমএ/