মাদ্রাসায় যৌন হয়রানি রোধে কাজ করবে মেন্টর

মাদ্রাসায় যৌন হয়রানি ও শিক্ষার্থীদের ওপর নির্যাতন বন্ধের উদ্যোগ নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ উদ্যোগের অংশ হিসেবে প্রতিটি মাদ্রাসায় একজন নারী শিক্ষককে মেন্টর হিসেবে নিযুক্ত করা হবে। এ উদ্যোগ কার্যকর করবে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড। সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন না হলে মাদ্রাসার এমপিও স্থগিত, পাঠদান ও একাডেমিক স্বীকৃতি বাতিল করা হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্ভরযোগ্য সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

ফেনির সোনাগাজীতে মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনার রেশ ধরে মন্ত্রণালয় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানায় সূত্র।

এর সত্যতা স্বীকার করে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান একেএম ছায়েফ উল্যা বলেন, মাদ্রাসায় যাতে কোনো শিক্ষার্থী যৌন নিপীড়ন কিংবা নির্যাতনের শিকার না হয় মন্ত্রণালয় সে জন্য এই উদ্যোগ নিয়েছে। ইতিমধ্যে নারী শিক্ষককে মেন্টর হিসেবে নিয়োগ দিতে প্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এটি বাস্তবায়ন করবেন সংশ্লিষ্ট এলাকার জেলা প্রশাসক ও শিক্ষা অফিসাররা।

তিনি জানান, ইতিমধ্যে প্রত্যেক মাদ্রাসায় একজন নারী শিক্ষককে আহবায়ক করে পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। অধ্যক্ষ অথবা শিক্ষক সরাসরি কোনো শিক্ষার্থীকে ডাকতে পারবেন না। কোনো অভিযোগ থাকলে বা কোনো বিষয়ে কথা বলার থাকলে আহবায়কের মাধ্যমে ডাকতে হবে।

নাবা/২৪মে/তারেক