বিদেশিদের কারণে দেশি বিনিয়োগকারীদের মাঝে আতঙ্ক

প্রায় তিন মাস ধরে পুঁজিবাজারে মন্দাভাব বিরাজ করছে। বিনিয়োগকারীদের মাঝে অজানা আতঙ্ক আর আস্থাহীনতা কাজ করছে। বিদেশিদের শেয়ার বিক্রির চাপ বেড়ে যাওয়ায় এ সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মার্চ ও এপ্রিল মাসে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা যে পরিমাণ শেয়ার ক্রয় করেছেন তার চেয়ে বেশি বিক্রি করেছেন। তাদের অব্যাহত শেয়ার বিক্রির কারণে সাধারণ এবং প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। এ কারণে গত দুই মাসে দরপতন হয়েছে অনেক।

পুঁজিবাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, সাধারণ ও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের মনে করে বিদেশিরা অত্যন্ত দক্ষ। তাই বিদেশি বিনিয়োগকারীরা একযোগে শেয়ার বিক্রি শুরু করলে দেশিদের মাঝে এক ধরনের অস্থিরতা কাজ করে। বিদেশিদের বিনিয়োগের পরিমাণ বেশি না হলেও তারা একযোগে বিক্রি করার কারণে এ সমস্যার সৃষ্টি হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, এপ্রিল মাস জুড়ে বিদেশিরা ৬৬৮ কোটি ২৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন করেন। এর মধ্যে শেয়ার ক্রয়ের পরিমাণ ছিল ২৫৭ কোটি চার লাখ টাকা। বিপরীতে শেয়ার বিক্রির পরিমাণ ৪১১ কোটি ২৩ লাখ টাকা। অর্থাৎ এপ্রিলে বিদেশিরা যে টাকার শেয়ার ক্রয় করেছেন বিক্রি করেছেন তার থেকে ১৫৪ কোটি ১৯ লাখ টাকা বেশি।

মার্চ মাসেও বিদেশিরা শেয়ার ক্রয়ের চেয়ে বেশি বিক্রি করেছেন। মার্চে বিদেশিদের শেয়ার লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৮৭৪ কোটি ১৯ লাখ টাকা। এর মধ্যে শেয়ার ক্রয়ের পরিমাণ ছিল ৩৭৫ কোটি ২৪ লাখ টাকা। বিপরীতে বিক্রির পরিমাণ ছিল ৪৯৮ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। অর্থাৎ শেয়ার ক্রয় থেকে বিক্রি বেশি হয় ১২৩ কোটি ৭১ লাখ টাকা।

নাবা/২৩মে/তারেক