বাজারমূল্যে ধান-চালে বিস্তর ফারাক!

অন্তত ১২ টাকা লোকসানে প্রতি কেজি ধান ১০ টাকায় বিক্রি করছেন কৃষক। অথচ খোলা বাজারে চালের কেজি ৩৫ টাকার বেশি। ধান-চালের বাজারমূল্যের এই বিস্তর ফারাককে অস্বাভাবিক বলছেন বিক্রেতারা।

কৃষি সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দাম নিয়ে সমস্যা সমাধানে ধান-চাল বাফার স্টক করতে হবে সরকারকে।

ধান উৎপাদনের সবচেয়ে বড় মৌসুম বোরো। দেশে মোট ধানের উৎপাদন ৫ কোটি টনের বেশি। যার সিংহভাগেরই আবাদ বোরো মৌসুমে। ফলন বেশি হওয়ার অজুহাতে মৌসুমের শুরুতে, এবার ধানের দাম ছিল অবিশ্বাস্য কম।

মৌসুম শেষের পর, কমেছে আরও একদফা দাম। যা বিক্রি হচ্ছে মাত্র ১১ থেকে ১২ টাকা কেজি দরে। যদিও উৎপাদন খরচ ২৪টাকা ধরে, সরকার দাম ঠিক করে কেজি প্রতি ২৬ টাকা। সেই হিসাবে কৃষকের কেজি প্রতি লোকসান ১২ টাকার বেশি।

ধানের দাম কম কিন্তু বিপরীত চিত্র চালের বাজারে। কৃষি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ধান-চালের দামের এই বিস্তর ফারাক দুষ্টচক্রের কারসাজি ফল। তাদের মতে, কেবল খাদ্য হিসেবেই নয়, দেশের বাস্তবতায় রাজনৈতিকভাবেও এ ফসলটি গুরুত্বপূর্ণ। তাই এর বাজারমূল্য নিয়ন্ত্রণ করতে হবে রাজনৈতিকভাবেই।
নাবা/ডেস্ক/কেএইচ/