‘বর্ষবরণ নির্বিঘ্ন করতে প্রস্তুত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল জানিয়েছেন, বর্ষবরণের অনুষ্ঠান নির্বিঘ্ন করতে যেকোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ঢাকাসহ সারাদেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রস্তুত রয়েছে।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) বেলা পৌনে ১২ টার দিকে রমনা পার্কে ডিএমপির নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণ শেষে সাংবাদিকদের তিনি এতথ্য জানান।

বর্ষবরণের উৎসবকে নির্বিঘ্ন করতে ঢাকাসহ সারাদেশে গোয়েন্দা নজরদারিসহ সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা হাতে নেওয়া হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে, তারা এখন যেকোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছে।

এছাড়া গুজব ঠেকাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে থাকছে সাইবার সিকিউরিটি ইউনিটের নজরদারি।

শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর রমনা বটমূল এলাকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

মন্ত্রী বলেন, বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখে সারাদেশে সর্বস্তরের মানুষ সামিল হবেন। আমাদের গোয়েন্দা সংস্থাসহ সব আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সজাগ রয়েছেন। পুলিশের সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে, তারা যেকোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছে।

পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে রমনা বটমূল এলাকাসহ পুরো ঢাকা শহর এবং দেশজুড়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সজাগ রয়েছেন বলেও জানান তিনি।

রাজধানীর প্রতিটি বড় উৎসব উদযাপনস্থল সিসিটিভি ক্যামেরার আওতায় রয়েছে। মঙ্গল শোভাযাত্রা ঘিরে আরো কঠোর নিঃশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। আমরা বিশ্বাস করি, নিরাপত্তা বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যদের তৎপরতায় কোনো ধরনের নাশকতার শঙ্কা নেই।

কেউ নাশকতা বা উস্কানি দিয়ে অনুষ্ঠানে বাধার সৃষ্টি করতে পারবে না জানিয়ে তিনি বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেউ কেউ উস্কানিমূলক প্রচারণা চালাতে পারে সেজন্য সাইবার সিকিউরিটি বিভাগের সদস্যরা নিবির মনিটরিং করছে।

পহেলা বৈশাখের উৎসবকে শান্তিপূর্ণ, সুষ্ঠু এবং সুন্দরভাবে উদযাপন করতে যা যা করণীয় তার সবই করা হবে বলে জানান তিনি।
নাবা/সেন্ট্রাল ডেস্ক/কেএইচ/