প্রশ্নপত্রে সেফুদা : শিক্ষক বরখাস্ত

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উল্টাপাল্টা বক্তব্য দিয়ে ভাইরাল ও বিতর্কিত হওয়া সেফাতুল্লাহ সেফুদার নাম প্রশ্নপত্রে আসার বিষয়টি ভাইরাল হয়েছে। এ কাণ্ড ঘটানো রাজধানীর রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের শিক্ষক জাহিনুল হাসানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

আজ বুধবার তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন কলেজের পরিচালনা কমিটির সদস্য ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মু. জিয়াউল হক। ঘটনা তদন্তে কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের (স্কুল শাখা) দশম শ্রেণির প্রাক–নির্বাচনী পরীক্ষায় ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বিষয়ের প্রশ্নপত্র নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার বিতর্কের সৃষ্টি হয়। ওই প্রশ্নপত্রে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন স্ট্যাটাস ও বক্তব্য দিয়ে বিতর্কিত প্রবাসী সেফাতুল্লাহ সেফুদাকে উদ্দীপক ধরে প্রশ্ন করায় সমালোচনা হচ্ছে।

জানা গেছে, ৪ জুলাই ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বিষয়ের পরীক্ষার সৃজনশীল প্রশ্নের একটিতে সেফাতুল্লাহকে উদ্দীপক হিসেবে ব্যবহার করে বলা হয়, ‘অদ্ভুত ধরনের এক মানুষ সেফাতুল্লাহ সেফুদা। সোশ্যাল মিডিয়ায় সে বিভিন্ন রকম কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করে। তরুণদের উদ্দেশে সে বলে “মদ খাবি মানুষ হবি, দেখ আমি আরও এক গ্লাস খাইলাম।” তার কথায় প্রতিবাদ করে একজন বিজ্ঞ আলেম বললেন, তার মধ্যে যদি ইমানের সর্ব প্রথম ও সর্বপ্রধান বিষয়ের প্রভাব পরিলক্ষিত হতো, তাহলে সে হয়ে উঠত একজন আত্মসচেতন ও আত্ম মর্যাদাবান ব্যক্তি।’ এই উদ্দীপকের ভিত্তিতে চারটি প্রশ্ন করা হয়।

এ নিয়েই বিতর্ক শুরু হয়।

নাবা/ডেস্ক/তারেক