নেত্রকোনায় সাড়ে ৫ হাজার কৃষক পাচ্ছেন ধানের ন্যায্যমূল্য

কৃষকের মুখে হাসি ফোটাতে সরকার নির্ধারিত মূল্যে ৫ হাজার ৩৮৩ মেট্রিকটন ধান সংগ্রহে মাঠে নেমেছে নেত্রকোনা জেলা খাদ্য অধিদফতর।

সিন্ডিকেট চক্রের থাবা এড়াতে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তফসির উদ্দিন খান বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দুপুরে সদর খাদ্যগুদামে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে এই ধান কেনা শুরু করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুমনা আল মজীদ, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সুরাইয়া খাতুন, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক একেএম সামছুদ্দিন আহম্মদ, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সেক্রেটারি গাজী মোজাম্মেল হোসেন টুকু, খাদ্য পরিদর্শক সদর খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুনতাসির মামুন, খাদ্য পরিদর্শক এসএম সালাহ্ উদ্দিন (কারিগরি), মোহাম্মদ এরশাদুর রহমান খান প্রমূখ।

খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুনতাসির মামুন জানান, ন্যায্যমূল্যে সদরে ৬৩২ মেট্রিকটন ধান সংগ্রহ করা হবে। এরই প্রেক্ষিতে কৃষক এখন তার প্রতি কেজি ধান ২৬ টাকা হিসেবে মণ প্রতি ১ হাজার ৪০ টাকা বিক্রি করতে পারবেন।

জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সুরাইয়া খাতুন জানান, জেলার দশ উপজেলার মধ্যে সরকার নির্ধারিত মূল্যে বারহাট্টায় ৪৩৩, পূর্বধলায় ৬৩১, মোহনগঞ্জে ৪৮৫, কেন্দুয়ায় ৫৮৪, দুর্গাপুরে ৫৬০, মদনে ৪৯৬, আটপাড়ায় ৩৫২, কলমাকান্দায় ৬১৩ ও খালিয়াজুরী থেকে ৫৯৭ মেট্রিকটন ধান সংগ্রহ করা হবে।

এই পক্রিয়ায় দশ উপজেলার ৫ হাজার ৩৮৩ জন কৃষকের কাছ থেকে ন্যায্যমূল্যে ধান কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। প্রত্যেক কৃষক সর্বচ্চো ৩ মেট্রিকটন পর্যন্ত ধান বিক্রি করতে পারবেন। তবে অনেক কৃষকের পক্ষে ৩ মেট্রিকটন ধান বিক্রি বা সরবরাহের সামর্থ্য নেই সেক্ষেত্রে সুবিধাভোগী কৃষকের সংখ্যা বাড়তে পারে বলেও জানান খাদ্য বিভাগের এই কর্মকর্তা।

নাবা/ডেস্ক/ওমর