নিজ দেশের নাগরিকদের  দেশে ফিরিয়ে আনল  কসোভো

কসোভো জিহাদি পরিবারের  কয়েক  ডজন নারী ও শিশুদের নিজ দেশে  ফিরিয়ে নিয়েছে। এসব জিহাদিরা সিরিয়া যুদ্ধে অংশ নেয়ার জন্য গিয়েছিল।  ২০ এপ্রিল  শনিবার  বিমানযোগে তাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে নেয়া হয়।  কসোভোর আইনমন্ত্রী আবলেরাদ তাহরি  বলেছেন, ‘সিরিয়া থেকে আমাদের নাগরিকদের ফিরিয়ে আনার পরিকল্পনা সফলভাবে শেষ হয়েছে।বিমানবন্দর থেকে বাসে করে   জিহহদি পরিবারের সদস্যদের গন্তব্যে নিয়ে আসা হয়। তাদের কে কঠোর নিরাপত্তার ভিতর রাখা হয়েছে।২০১২ সালে কসোভোর তিন শতাধিক নারী ও পুরুষ   সিরিয়ায় পাড়ি দিয়েছিল।এদের মধ্যে কমপক্ষে  ৭০ জন পুরুষ সিরিয়ার যুদ্ধে অংশ নেয়। ১৫০ জন এর মতো নারী ও শিশু  আইএস এর  যুদ্ধক্ষেত্রে  নিখোঁজ হন।কসোভোর জনসংখ্যার ৯০ শতাংশ মুসলমি হলেও  দেশের নাগরিকরা ধর্মনিরপেক্ষতায় বিশ্বাসী। সেখানে   ইসলাম এর প্রভাব কম।   দেশটি তে ধর্ম কে কেন্দ্র  সহিংসতার ঘটনা না ঘটলেও  ইরাক ও সিরিয়ার  যুদ্ধকে কেন্দ্র করে  করে শতাধকি মানুষকে কারাগারে পাঠানো হয়।উল্লখ্যে, কসোভোর আলবেনীয় বিদ্রোহীদের  সাথে সার্বীয়দের  যুদ্ধ শেষ  হয় ১৯৯৮-৯৯ সালে।   ওই যুদ্ধে সার্বিয়ার উপর   সামরিক অভিযান  চালায় ন্যাটো। এতে কসোভো থকেে পালাতে বাধ্য হয় সার্বীয়রা। । এর এক দশকরে মাথায় ২০০৮ সালে আনুষ্ঠানকিভাবে স্বাধীনতা লাভ করে কসোভো।সুত্র: আল-জাজিরা।

নাবা/তানিয়া রাত্রি