নারায়ণগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পোশাক নিয়ে ষড়যন্ত্র!

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ভট্রপুর মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পোশাক পরিবর্তন নিয়ে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী আফনান নূর নিহা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অঞ্জন কুমার সরকার বরাবর একটি আবেদন করেছে।

তবে আবেদনটি অত্যন্ত দুঃখজনক, অনাকাঙ্ক্ষিত, মিথ্যা, বানোয়াট এবং ষড়যন্ত্রেরই অংশ হিসেবে দেখছেন বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

আফনান নূর নিহা অভিযোগে উল্লেখ করেন, ‘গত ৪ জুলাই জানতে পারি আমাদের বিদ্যালয়ের বর্তমান পোশাক পরিবর্তন করা হবে। এ খবর শোনার পর থেকে উক্ত বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। বিগত ১৪ফেব্রুয়ারী ২০১৫ ইং তারিখে হাতের লেখা সুন্দর ও গল্প লেখার প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করে নীল-সাদা পোশাক পড়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে প্রথম পুরস্কার গ্রহন করে উক্ত বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী। প্রধানমন্ত্রী সেদিন নীল-সাদা পোশাকের উপর হাত বুলিয়ে আদর করেছিলেন। আমরা সে দৃশ্য টিভিতে দেখেছি। আমরা যখন বিদ্যালয়ে আসি তখন সে পোশাকের কথা মনে পড়ে। যে পোশাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতের ছোয়া রয়েছে সে পোশাক যেন কোন ভাবে পরিবর্তন করা না হয়।’

বিদ্যালয় কর্তৃ পক্ষ বলছেন, সোনারগাঁয়ের একমাত্র মডেল স্কুল হলো ভট্রপুর মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। এর সুনাম ক্ষুন্ন করতেই একটি স্বার্থন্বেসী মহল অপতৎপরতা চালাচ্ছে।

ভট্রপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালেয়র ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আবু নাইম ইকবাল বলেন, আমি গত ১৫ বছরে ভট্রপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টিকে সোনারগাঁয়ের মধ্যে মডেল বিদ্যালয় হিসেবে রূপান্তরিত করেছি।বিদ্যালয়ের শিক্ষার মান পরিবর্তনের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের পোশাক পরিবর্তন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘বর্তমান পোশাক বাংলাদেশের পতাকার রং লাল সবুজ। যে সকল শিক্ষার্থী পোশাকের টাকা দিতে না পারে তাদের পোশাক আমি দিচ্ছি। নীল সাদা পোশাকটি বেশির ভাগ বিদ্যালয়ে রয়েছে। আমরা চাচ্ছি ভট্রপুর মডেল স্কুলের পোশাকও সোনারগাঁয়ের মধ্যে মডেল হয়ে থাকবে।’

আবু নাইম ইকবাল আরও বলেন, ‘অনেক পথ পাড়ি দিয়ে আজকের এ অবস্থানে এসেছি, তাই এ বিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা, লেখা-পড়ার মান ও সুনাম ক্ষুন্ন হতে দেব না।’

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অঞ্জন কুমার সরকার বলেন, আমি অভিযোগটি পেয়েছি। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষা কর্মকর্তাকে তলব করে জিজ্ঞেস করব কি কারনে বিদ্যালয়ের পোশাক পরিবর্তন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
নাবা/ডেস্ক/কেএইচ/