তাসকিনের জন্য মন খারাপ রুবেলের

২০১৪ বিশ্বকাপ একসঙ্গে মাতিয়েছেন বাংলাদেশের দুই পেস বোলার তাসকিন আহমেদ ও রুবেল হোসেন। কিন্তু এবার পুরোপুরি ফিট না থাকায় দলে সুযোগ পাননি তাসকিন। বিশ্বকাপের স্বপ্নভঙ্গ হওয়ার বিষয়টি সহজে নিতে পারেননি তিনি। দল ঘোষণার পর সংবাদ মাধ্যমের সামনে কান্নায় ভেঙে পড়েন। মুহূর্তের মধ্যে বিষয়টি নাড়া দিয়ে যায় ক্রিকেট পাড়ায়। নাড়া দেয় আরেক পেসার রুবেল হোসেনকেও। বিশ্বকাপের মতো বড় মঞ্চে সতীর্থ তাসকিনকে না পেয়ে খুব খারাপ লেগেছে তার। বুধবার গনমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে অকপটে জানিয়েছেন সতীর্থের জন্য মন খারাপের কথা।

দীর্ঘদিনের চোট কাটিয়ে বিপিএলে ‍দুর্দান্তভাবে ফেরেন তাসকিন। ২২ উইকেট নিয়ে চলে আসনে নির্বাচকদের ভাবনায়। ডাক পান নিউজিল্যান্ড সিরিজে। কিন্তু ভাগ্য সহায় ছিল না। যে বিপিএল দিয়ে সবার নজরে আসেন সেই বিপিএলই তাকে ছিটকে দেয় লম্বা সময় জন্য। এখনো পুনর্বাসন প্রক্রিয়া চলছে। মাঝে রূপগঞ্জের হয়ে একটি ম্যাচ খেলেন। কিন্তু এক ম্যাচ দিয়ে মন জয় করতে পারেননি নির্বাচকদের। তাকে বাদ দিয়েই ঘোষণা হয় বিশ্বকাপ স্কোয়াড।

তাসকিনের প্রসঙ্গ নিয়ে রুবেল বলেন, ‘তাসকিন আমার অনেক ভালো এবং কাছের একজন ছোট ভাই। তাঁকে আমি অনেক স্নেহ করি। সে অনেক ভালো বোলার। তবে এটি সম্পূর্ণ নির্বাচকদের ওপর নির্ভর করে। আর বিশ্বকাপ একটি অনেক বড় টুর্নামেন্ট। সুতরাং এখানে আমার আসলে বলার কিছু নেই। অবশ্যই আমার খারাপ লাগছে (তাসকিন না থাকায়)। সে বিপিএলটি অনেক ভালো খেলেছিল, ইনজুরিতে পড়েছে আবার। আসলে এটি ওর জন্য খুব দুঃভাগ্যজনক। ’

বিশ্বকাপের মতো বড় মঞ্চে তৃতীয় বারের মতো বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করতে যাচ্ছেন রুবেল।  তাই পুরোনো অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগানোর পাশাপাশি এবারের আসরকে স্মরণীয় করে রাখতে চান এই পেস তারকা। তিনি বলেন, ‘এটি আমার তৃতীয় বিশ্বকাপ হবে। অবশ্যই অভিজ্ঞতা বেশি থাকবে। আমি চেষ্টা করবো যেন এর আগে যে দুটি বিশ্বকাপ খেলেছি এবং বিগত ভালো ম্যাচগুলো আছে সেগুলো স্মরণ করার চেষ্টা করব। আর ভালো খেলার চেষ্টা করব। বিশ্বকাপটি যেন স্মরণীয় হয়ে থাকে সেটাই আমার চাওয়া।’

(নাবা/ ১৭এপ্রিল/এইচএ)