তানোরে বাগানে বাগানে বিঁষের হাট!

রাজশাহীর তানোরের বিভিন্ন এলাকায় আম বাগান থেকে অপরিপক্ক কাঁচা আম পেড়ে বাগানে ও আড়তে নিয়ে মানবদেহের জন্য ক্ষতিকারক ফরমালিন ও বিভিন্ন কেমিক্যাল (বিঁষ) দিয়ে আম পাকানো ও দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠানো হচ্ছে, কেউ কেউ আবার স্প্রে মেশিনের সাহায্য গাছে গাছে এসব ওষুধ-কেমিক্যাল স্প্রে করছে।

জানা গেছে, তানোরের কাঁমারগা ইউপির মিরাপুর গ্রামে কয়েকটি বাগানে ও ছাঐড় বালিকা বিদ্যালয় সংলগ্ন একটি আমবাগানে ওষুধের নামে প্রকাশ্যে বিষাক্ত কেমিক্যাল স্প্রে করা হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানান, সাবাই হাট এলাকার শাহাদৎ হোসেন ও মোয়াজ্জেম হোসেন তারা পিতাপুত্র মিলে ৭ লাখ টাকায় ৫ বছরের জন্য ওই আমবাগান ইজারা নিয়েছেন। আজ বুধবার সরেজমিন বাগানে কথা হয় মোয়াজ্জেম হোসেনের সঙ্গে তিনি বলেন, আমের রং ভাল ও পোকার হাত থেকে রক্ষা করতে ওষুধ দেয়া হচ্ছে তবে এসব মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর নয়।

তিনি আরও বলেন, সবাই দিচ্ছে তাই তারাও দিচ্ছেন এটা দোষের কি আর মানুষ ধান চাষেও তো ওষুধ দিচ্ছে তাহলে। গ্রামবাসীরা জানান, দীর্ঘদিন ধরেই এই বাগানের আম গাছে বিষাক্ত কেমিক্যাল স্প্রে করা হচ্ছে। আবার কেউ বলছে, আমের আড়ালে তারা অন্য কারবার করে থাকতে পারে।

অথচ প্রকাশ্যে দিবালোকে এসব অপকর্ম হলেও আইন প্রয়োগকারি সংস্থা অজ্ঞাত কারণে নিরব ভূমিকা পালন করে চলেছে। স্থানীয়রা এলাকার আমের আড়ৎ ও এসব আম বাগানে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে অভিযান পরিচালনার দাবি করেছে।

 

নাবা/ডেস্ক/হাফিজ