ঝাড়খন্ডে মাওবাদী হামলা: ৫ পুলিশ নিহত

ভারতের ঝাড়খন্ডে টহল পুলিশের ওপর মাওবাদীরা হামলা করেছে।  এ হামলায়  পাঁচ পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় জামসেদপুর থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে সারাইকেলা জেলায় একটি স্থানীয় বাজারের কাছে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

হামলার জন্য মাওবাদী বিদ্রোহীদের দায়ী করেছে পুলিশ। দুই বিদ্রোহী এই হামলা চালানোর পর পুলিশের অস্ত্র লুট করেছে।

মাওবাদীরা চীন বিপ্লবের নেতা মাও সেতুংয়ের পথ অনুসারি। চার দশকের বেশি সময় ধরে ভারত সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে আসছে তারা । বর্গা চাষী, দরিদ্র ও আদিবাসী সম্প্রদায়ের জন্য জমি ও কাজের দাবিতে তাদের এই সশস্ত্র লড়াই।

অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার জন্য মাওবাদীদের সবচেয়ে বড় হুমকি বলে ঘোষণা করেছে ভারত সরকার। কয়েক হাজার সশস্ত্র যোদ্ধা নিয়ে ছত্তিশগড়ের বিশাল পাহাড়ি এলাকা নিয়ন্ত্রণ করে আসছে মাওবাদীরা।

শুক্রবার সন্ধ্যায় পশ্চিমবঙ্গ-ঝাড়খন্ড সীমান্তের কাছে হামলার ঘটনায় দুই সহকারী পুলিশ পরিদর্শক ও তিন কনস্টেবল নিহত হযেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তারা।

ঝাড়খন্ডের মুখ্যমন্ত্রী বাঘুবর দাস এই হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছেন পুলিশ সদস্যদের এই ত্যাগ বৃথা যাবে না। মাওবাদীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। এ মাসের শুরুতে ঝাড়খন্ডের দুমকা জেলায় মাওবাদীদের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক সেনা সদস্য নিহত ও অপর চার জন আহত হয়।

গত ২৮ মে সারাইকেলায় এক বিস্ফোরণে নিরাপত্তা বাহিনীর এগারো সদস্য আহত হয়। ওই বিস্ফোরণে আহত এক সিআরপিএফ সদস্য পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। সুত্র:এনডিটিভি।

নাবা/ডেস্ক/তানিয়া রাত্রি