জাপানে জনসংখ্যা হ্রাসে দায়ী নারীরা

নিউজ ডেস্ক: জাপানের জনসংখ্যা কমে যাওয়ার জন্য সন্তানহীন নারীদের দায়ী করেছেন দেশটির উপ-প্রধানমন্ত্রী তারো আসো। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার তিনি পার্লামেন্টের বাজেট অধিবেশনে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, অনেক মানুষ রয়েছেন, যারা বয়স্কদের দায়ী করছেন; কিন্তু একটা ভুল। সমস্যা হলো তাদের নিয়েই, যারা সন্তান জন্ম দিচ্ছে না।

৭৮ বছরের এই তারো আসো জাপানের অর্থমন্ত্রী হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন। এক ভাষণে তিনি সামাজিক নিরাপত্তা ব্যয় বৃদ্ধির জন্য বয়স্কদের দায়ী করার বিষয়টিও প্রত্যাখ্যান করেছেন। তবে পার্লামেন্টে বাজেট অধিবেশনে বিরোধী দলের এক এমপির প্রতিবাদ ও সমালোচনার মুখে এই বক্তব্য প্রত্যাহার করেছেন উপপ্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, সংবাদ মাধ্যমে তার সে বক্তব্য যথাযথভাবে তুলে ধরা হয়নি। তিনি যা বলতে চেয়েছেন তা উঠে আসেনি। জাপানের মোট জনসংখ্যার ২০ শতাংশের বেশি মানুষের বয়স ৬৫ বছরের বেশি। ১৯৭০ সাল থেকেই দেশটির জনসংখ্যা ক্রমাগত কমছে। ২০১৭ সালে দেশটিতে ৯ লাখ ৫০ হাজারের কম শিশুর জন্ম হয়েছে। বিপরীতে মৃত্যু হয়েছে ১৩ লাখ মানুষের।

১৯৯০ সাল থেকে জাপান সন্তান জন্ম বৃদ্ধি করতে নীতি গ্রহণ শুরু করে। এর আওতায় শিশু যত্ন সেবা, আবাসন ও সন্তান নেওয়া পরিবারের জন্য সরকারি বিশেষ সুবিধা চালু করা হয়। তবে এখনো দেশটির কর্মরত নারী ও পুরুষের জন্য ক্যারিয়ার ঠিক রেখে সন্তান নেয়া কঠিন। সূত্র: সিএনএন