চাঁদে দ্বিতীয় অভিযান চালাবে ভারত

চলতি বছরের সেপ্টেম্বর নাগাদ চাঁদে অবতরণ করবে ভারত। এ লক্ষ্য নিয়ে নতুন মহাকাশযান উন্মোচন করেছে ভারতের মহাকাশ সংস্থা। এই অভিযান সফল হলে পৃথিবীর একমাত্র উপগ্রহটিতে মহাকাশযান পাঠানো চতুর্থ দেশ হবে ভারত।

এর আগে চাঁদে মহাকাশযান পাঠানোয় সফল হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, সোভিয়েত ইউনিয়ন ও চীন।  চন্দ্রযান-২ নামে নতুন মহাকাশযানটি দিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো চাঁদে অভিযান চালাবে ভারত।

চন্দ্রযান-১ নামের মহাকাশ যান ব্যবহার করে ২০০৮ সালে প্রথমবারের মতো চাঁদে অভিযানের প্রচেষ্টা চালায় ভারত। ওই মহাকাশযানটি চাঁদের কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করলেও চন্দ্র পৃষ্ঠে অবতরণ করেনি। তবে নতুন অভিযানে চাঁদের পৃষ্ঠদেশকেই প্রাধান্য দিচ্ছে   ভারত।

চন্দ্রযান-২ মহাকাশ যানের মাধ্যমে চন্দ্রপৃষ্ঠের পানি, খনিজ ও পাথরের গঠন বিষয়ক তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা করবে দেশটি।ভারতের নতুন মহাকাশযানটিতে মূল তিনটি অংশ থাকবে। একটি অংশ চাঁদের পৃষ্ঠে অবতরণ করবে, একটি অংশ কক্ষপথ প্রদক্ষিণ করবে আর অপর অংশটি বাকি অংশগুলোকে বহন করবে।

পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে সেপ্টেম্বর মাসে চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণ করবে মহাকাশযানটির অবতরণকারী ও বহনকারী অংশটি। এই অভিযান সফল হলে চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে প্রথমবারের মতো কোনও অভিযান পরিচালিত হবে।

মহাকাশযানটি চাঁদে ১৪ দিনের অংশ নেবে বলে আশা করা হচ্ছে। ভারতীয় মহাকাশ সংস্থা আইএসআরও-এর চেয়ারপার্সন কে সিভান  বলেছেন, ‘মহাকাশযানটি চন্দ্রপৃষ্ঠের আধেয় বিশ্লেষণ করবে এবং পৃথিবীতে তথ্য ও ছবি পাঠাবে’। সুত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া।

নাবা/ডেস্ক/তানিয়া রাত্রি