চাঁদপুরে বিয়ের প্রলোভনে শিক্ষিকা ধর্ষণ

চাঁদপুরের হাইমচরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কিন্ডার গার্ডেনের শিক্ষিকাকে ৩ বছর যাবৎ ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। বিয়ে না করে শিক্ষিকাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়ায় প্রতারক হাসান আল মামুনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, বখাটে হাসান আল মামুনের সঙ্গে তিন বছর পূর্বে সিএনজি স্কুটারে যাওয়ার সময় কিন্টার গার্ডেনের শিক্ষিকার সাথে পরিচয় হয়। কৌশলে বখাটে হাসান আল মামুন শিক্ষিকার মোবাইল নাম্বারটি নিয়ে প্রতিদিন ফোন করে তাকে উত্যক্ত করতে থাকে। এক পর্যায়ে বিয়ে করার প্রলোভন দেখিয়ে আংটি পড়িয়ে দীর্ঘদিন যাবত শিক্ষিকার বাড়িতে গিয়ে স্বামী স্ত্রীর মত অবৈধ মেলামেশা করতে থাকে।

এসময় শিক্ষিকা বিয়ে করার কথা বললে লম্পট হাসান আল মামুন তার ছোট বোনকে বিয়ে দেওয়ার পরে নিজে বিয়ে করবে বলে শিক্ষিকাকে জানান।

কিছুদিন পূর্বে হাসান আল মামুন শিক্ষিকাকে আর বিয়ে করবে না বলে জানিয়ে দেয় ও এই ঘটনাটি কাউকে জানালে জানে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

এতে শিক্ষিকা নিরুপায় হয়ে চাঁদপুর আদালতে প্রতারক হাসান আল মামুনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। আদালত প্রতারক হাসান আল মামুনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

শারীরিক নির্যাতনের শিকার শিক্ষিকা জানায়, বাবা মারা যাওয়ার পর অসহায় হয়ে পড়ায় সেই সুযোগটি কাজে লাগিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে হাসান আল মামুন দীর্ঘদিন যাবৎ নিজের অমতে জিম্মি করে স্বামী স্ত্রীর মতো মেলামেশা করেছে।

তিনি আরও জানান, এই ঘটনাটি যাতে কাউকে না বলি এজন্য হাসান আল মামুন বিভিন্ন মোবাইল ফোন থেকে ফোন করে জানে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। এখন পরিবার পরিজন নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। আমি এর সঠিক বিচার দাবি করি ও সুষ্ঠু সমাধান কামনা করছি।

মামুন হাইমচর উপজেলার ২নং উত্তর আলগী ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড নয়ানী গ্রামের মৃত নূর মোহাম্মদ হাওলাদারের ছেলে।

 

নাবা/ডেস্ক/হাফিজ