গাজীপুরে থানার ওসি’র বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের অভিযোগ

যুবলীগ নেতা লিয়াকত হোসেনকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় এজাহারভূক্ত আসামিদের গ্রেফতার না করাসহ পুলিশের নানা অসহযোগীতা ও স্বার্থন্বেসী মহলের দ্বারা ক্ষতির শিকারের অভিযোগ এনে গাজীপুর সদর থানার ওসির পদত্যাগ দাবি করে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে গাজীপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

এসময় ওসির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে ধরে লিখিত বক্তব্য রাখেন, গাজীপুর মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাসুদ রানা এরশাদসহ ৫ জন ক্যাবল অপারেটর ব্যবসায়ী।

লিখিত বক্তব্যে মাসুদ রানা বলেন, ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচন চলাকালে আমার বড় ভাই লিয়াকত হত্যায় চিহ্নিত সন্ত্রাসী মেহেদী হাসান নাহিদ অস্ত্রের যোগান দেয়। তার বিরুদ্ধে থানায় ২০টির বেশি মামলা রয়েছে। নাহিদ তার বাসায় লিয়াকত হোসেন খুনের দায়ে অভিযুক্তদের আশ্রয় দেয়।

এসব ব্যাপারে সদর থানার ওসি সমীর চন্দ্র সূত্রধরকে জানানো হলেও তিনি কোন ব্যবস্থা নেন নি। এছাড়া ডিস ব্যবসায় আধিপত্য নিয়ে নাহিদ বৈধ ডিস ব্যবসায়ী ও কর্মচারীদের মারধর করে। ব্যবসায়ীরা লিখিত অভিযোগ দিলে ওসি কোন ব্যবস্থা নেয়নি।

তাই একজন দুর্নীতিপরায়ন পুলিশের জন্য গোটা সমাজ ব্যবস্থা ধ্বংস হতে পারে না। এজন্য ওসির প্রত্যাহার এবং সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিতে স্থানীয় সংসদ সদস্য, মন্ত্রী এবং পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

অভিযোগের বিষয়ে ওসি সমীর চন্দ্র সূত্রধর জানান, অভিযোগকারী অভিযোগ মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

 

নাবা/ডেস্ক/হাফিজ