গণপিটুনিতে স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মীর মৃত্যু

সিলেট নগরীতেগণপিটুনিতে এক স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী নিহত হয়েছেন। তার নাম দুদু মিয়া (৩৫)। বুধবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে নগরীর বনকলাপাড়া এলাকায় ডাকাত সন্দেহে তাকে গণপিটুনি দেয়া হয়।

নিহত দুদু মিয়া স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণসহ একাধিক মামলার অভিযোগ এলাকাবাসীর।

স্থানীয়রা জানান, বুধবার রাতে এলাকায় ডাকাত পড়েছে বলে বনকলাপাড়া এলাকার শাহ রুমি মসজিদের মাইকে ঘোষণা দেয়া হয়।

এ ঘোষণা শুনে এলাকাবাসী জড়ো হয়ে বনকলাপাড়ার গোলাপ পয়েন্টে দুদুকে ধরে গণপিটুনি দেন। এতে তার মৃত্যু হয়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ দুদু ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। ঘটনাস্থলে উপস্থিত একাধিক ব্যক্তি জানিয়েছেন, নিহত দুদুর বিরুদ্ধে ধর্ষণসহ একাধিক মামলা রয়েছে। গত পহেলা বৈশাখের পর দিন বনকলাপাড়ায় সংঘটিত একটি ধর্ষণ মামলার আসামি দুদু। তিনি নিজেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগকর্মী ও কাউন্সিলরের লোক হিসেবে এলাকায় পরিচয় দিতেন।

ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা গেছে, এলাকার সড়কের মধ্যে দুদুর মরদেহ পড়ে আছে। তার মাথায় আঘাত করা হয়েছে। নিহতের হাতে একটি দা রয়েছে।

এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও স্থানীয় কাউন্সিলর আফতাব আহমদ বলেন, মসজিদে মাইকিং করে গণপিটুনিতে একজনকে মারা হয়েছে। কী কারণে মারা হয়েছে তা খোঁজ নিয়ে দেখছি। তবে দুদুর কোনো রাজনৈতিক পরিচয় নেই।

সিলেট মহানগর পুলিশের বিমানবন্দর থানার ওসি শাখাওয়াত হোসেন বলেন, বনকলাপাড়া থেকে দুদু নামে একজনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ওসি জানান দুদুর বিরুদ্ধে ধর্ষণসহ বিভিন্ন অভিযোগে ৪-৫টি মামলা রয়েছে। নিহতের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে।
নাবা/সেন্ট্রাল ডেস্ক/কেএইচ/