খোলা চিঠি: অপূর্ন ভালেবাসা

এক পড়ন্ত বিকেলে তুমি ঘুমিয়ে ছিলে- তোমার ঘুমন্ত মায়াবি মুখটার দিকে চোখ পড়তেই আমার বুকটা কেঁপে উঠে। একটা ভালোলাগা আমাকে স্তব্ধ করে দেয় কিছুক্ষনের জন্য। একসময় সব নিয়ম কানুন ভেঙ্গে শাসন বারন উপেক্ষা করে ভালোবাসা অনুভব করতে থাকি তোমার প্রতি। আমার ভালোবাসায় কোন পাপ ছিল না। ছিল না কোন স্বার্থ লুকানো। অযোগ্যতা আর অসুন্দরে ভরপুর ছিলাম আমি। তাই ভালোলাগার কথা তোমাকে জানাতে চাইনি কোনো অবস্থাতেই।
নিরবে দূর থেকে ভালোবেসে যেতে চেয়েছিলাম- অচেনা, অপরিচিতা হয়ে থাকতে চেয়েছিলাম। কিন্তু তুমি তা হতে দিলেনা। আড়াল থেকে প্রকাশ্যে নিয়ে এলে। বুঝিয়ে দিলে তুমিও ভালোবাস আমায়, অনেক শ্রদ্ধা, অনেক বিশ্বাস ছিল তোমার প্রতি। আর দশটা ছেলের চাইতে অনেকটা আলাদা ভাবতাম তোমাকে। তোমার প্রতিটা কথার প্রতি ছিল আমার অগাধ বিশ্বাস। তুমি মাঝে মাঝেই আল্লাহর কসম করে বলতে আমাকে তুমি ভালোবাস। আমাকে বিয়ে করবে। আমি সে কথা অবিশ্বাস করতে পারিনি। কি জানি কোন অপরাধে আমার প্রতি এতোটা কঠিন হয়ে গেলে তুমি। কেনো মুখ ফিরিয়ে নিলে? কথা দিয়ে কেন কোন কথা রাখনি? কেন অবিচার করলে আমার প্রতি? এমন হাজারো প্রশ্ন আজ আমার মনের কোনে উঁকি মারে।
প্রেমে পড়লে নাকি মানুষ বোকা হয়ে যায়। আমিও তার ব্যতিক্রম হইনি। তাই দীর্ঘ সময় সম্পর্ক করার পরও বুঝতে পারিনি- সবটাই তোমার অভিনয়। বুঝতে পারিনি তুমি টাইম পাস করেছ। আমার জানামতে আমি কখনোই তোমার অবাধ্য হইনি। তুমি কষ্ট পাও এমন কিছুই করিনি। তোমাকে ঠকাইনি। তোমার ক্ষতি হোক এমন প্রত্যাশাও করিনি কখনো। তারপরও তোমার আদালতে আমি অপরাধী। কোন অন্যায় না করেও আজ আমি কঠিন শাস্তি ভোগ করছি।
হঠাৎ করেই বদলে গেলে তুমি। যে তুমি আমাকে কল না দিয়ে আমার সাথে কথা না বলে ঘুমাতে যেতে না। সে তুমি মন থেকেই মুছে ফেলছ আমার নাম্বার। বিজি হয়ে গেছ অন্য কোনো নাম্বারে। খুব কষ্ট পেয়েছি। দীর্ঘ দিনের অভ্যাস। হাজারো রাত জেগে আমরা কথা আদান প্রদান করেছি। তাই কষ্ট কেটে যেতো রাতের অনেকটা সময়। কান্না করা ছাড়া তখন আমার কিছুুই করার ছিল না। আমি জানি ভালোবাসা জোড় করে পাবার কিছু না। তাই কোন প্রশ্ন বা অধিকার নিয়ে আজো আমি তোমার সামনে দাঁড়াতে পারিনি। তুমি প্রথমেই আমাকে ফিরিয়ে দিতে পারতে। তাহলে হয়ত আজ এতোটা কষ্ট বয়ে বেড়াতে হতো না।
স্বপ্ন ভেঙ্গে যাওয়ার কষ্ট হয়তো তোমাকে স্পর্শ করেনি তাই বুঝতে পারিনি আমার মনের অবস্থা। জানতে চাওয়ার ইচ্ছেটাও তোমার কাছে অহেতুক। অনেক ভালো থাকার আশায় বিচ্ছিন্ন করেছ আমাকে। দূরে ঠেলে দিছ। ভুলে গেছ। এমনতো কথা ছিলনা। তুমি অকারনেই একটা সুন্দর সম্পর্ক ধুলায় মিশিয়ে দিছ। আমি জানি অনেক সুখে থাকার আশায় ভালো থাকার আশায় আমাকে মুছে ফেলছ তোমার মন থেকে। তারপরও আজ ভালোবাসা দিবসে তোমাকে ছোট্ট একটা প্রশ্ন না করে থাকতে পারলাম না। প্লিজ বলো- আমার অপরাধটা কি ছিল? যদি কোনো অপরাধ ছাড়াই আমাকে কষ্ট দিয়ে থাক। আমাকে ঠকিয়ে থাক, তাহলে মনে রেখোÑ আল্লাহ আছেন। ভালো থেকো।
ইতি-
যাকে খুব সহজেই ভুলে সে শুকনো গোলাপ।
নাবা/কবির হোসেন মিজি