খালেদা জিয়ার ভরসা ইউনাইটেডে

দূর্নীতি মামলায় কারাগারে থাকা বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া আবারো ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে তিনি অনীহা প্রকাশ করেছেন। কারা কতৃপক্ষ জানিয়েছে, তিনি বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে চিকিৎসা নিতে অনীহা প্রকাশ করায় তাকে আর নেওয়া হয়নি। তবে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী রাজধানীর বেসরকারি ইউনাইটেড হাসপাতালে নিজস্ব বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে চিকিৎসা নিতে চান বলে জানিয়েছেন, বিএনপিপন্থী চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টর’স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ—ড্যাবের আহ্বায়ক অধ্যাপক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার।
আজ রোববার (১০ মার্চ) দুপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের কেবিন ব্লকের সামনে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে অধ্যাপক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার বলেন, ‘ওনার (খালেদা জিয়া) যে ইচ্ছাটা, ইউনাইটেড হাসপাতালে উনি চিকিৎসা নিয়ে থাকেন। ওখানে নিজস্ব যে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক রয়েছেন, যারা সারাজীবন ওনাকে দেখছেন, তাঁরা ওখানে আছেন, তাদের অধীনে চিকিৎসা নিতে চাচ্ছেন তিনি।’
ড্যাব আহ্বায়ক আরো বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ। এমনকি হুইল চেয়ারে বসার যে পাদানি থাকে সেখানে ঠিকমতো বসতে পারেন না। খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডের চিকিৎসক এফএম সিদ্দিকী কারাগারে গিয়েছিলেন। সেখানে স্পষ্ট করে বলেছেন বেসরকারি হাসপাতাল ইউনাইটেড ওনার যে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার আছে তাদের অধীনে চিকিৎসা নিতে। সুতরাং এটা যে খুব একটা বড় দাবি আমরা তা মনে করি না। তাকে পিজিতেই আনতে হবে এমন তো কথা নেই। এদেশে অনেকেই আছেন যারা প্যারোলে বিদেশে গিয়েছিলেন এখনও যাচ্ছেন চিকিৎসার জন্য।’

তবে খালেদা জিয়া কি চিকিৎসার জন্য প্যারোলে যাবেন কিনা? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন, চিকিৎসার জন্য তিনি প্যারোলে যাবেন কিনা সেটা তার ব্যাপার। তবে দেশে বসেই চিকিৎসা পাচ্ছেন না, প্যারোল তো অনেক পরের কথা।
এর আগে বঙ্গবন্ধু হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন সাংবাদিকদের বলেছিলেন, বিএনপি প্রধানকে হাসপাতালে আনা হচ্ছে। সেজন্য বিএসএমএমইউর কেবিন ব্লকের দুটি ভিআইপি কেবিন (৬২১ ও ৬২২) প্রস্তুতও করা হয়।

নাবা/রাজু/নয়ন/সেন্ট্রাল ডেস্ক/