ক্যানসারে আক্রান্ত গায়িকা পলি সায়ন্তনী

দুই বছর ধরে মরণব্যাধি ক্যানসারের সঙ্গে লড়ছেন  সংগীতশিল্পী পলি সায়ন্তনি। পলি জানান, দুই বছর আগে তার ক্যানসারটি ধরা পড়ে। তারপর থেকেই নিয়মিত চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি। এরই মধ্যে ২০ লাখ টাকা ব্যয় হয়ে গেছে। শারীরিক অবস্থার তেমন কোনো উন্নতি নেই। প্রয়োজন উন্নত চিকিৎসা। সেজন্য প্রয়োজন আর্থিক সাহায্য।

নিজের আত্মীয়স্বজন ও সহকর্মীদের সহযোগিতায় এই জটিল রোগের চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করাটা তার পক্ষে এখন দুরূহ হয়ে পড়েছে বলেও জানান পলি। তিনি বলেন, গেল দুই বছর আমি নিয়মিত চিকিৎসা নিচ্ছি। আমার আত্মীয়স্বজন ও পরিবারের পাশাপাশি এই সময়ে আমাকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন আসিফ ভাই, ধ্রুব গুহ দাদা, শামসুদ্দিন ভাই এবং আমার অন্য এক বড় ভাই। কিন্তু আমার উন্নত চিকিসার জন্য দেশের বাইরে যেতে হবে। সেই অর্থনৈতিক সামর্থ্য আমার নেই। তাই এখন আমার আর্থিক সহায়তা প্রয়োজন।

তিনি অভিমান নিয়ে বলেন, আমি কাউকে অসুখের ব্যাপারে কিছু জানাতে চাইনি। কারণ শিল্পীরা অসুখে পড়লে সেসব নিয়ে নিউজ হলে লোকে হাসাহাসি করে। ভাবে সরকারি সাহায্য পাওয়ার জন্য এসব অসুখের নাটক। আমি সেই লজ্জা সইতে পারব না। এ জন্য কাউকে ঘটা করে আমার অসুখটির কথা জানাইনি। নীরবে নীরবে যুদ্ধ করে চলেছি। পলি আরও বলেন, তবে কষ্ট লেগেছে এ জন্য আমার সহকর্মীদের নীরবতা দেখে।

সংগীতের অনেক মানুষই জানেন আমি ক্যানসারে আক্রান্ত। তারা জেনেও কোনোদিন আমার খোঁজ নিতে আসেনি। এত কাছের মানুষ ছিল আমার। একটা মানুষও দেখতে আসেনি আমাকে। শিল্পমনা একটি পরিবারের সন্তান হিসেবে তিন ভাইবোন মানুষকে গান শুনিয়ে জীবন পার করে দিলাম। কী পেলাম! কী মূল্যায়ন হলো তার! কিছুই না। এ মিডিয়া, এ গানের আঙিনা খুব নিষ্ঠুর আর স্বার্থপর। যত দিন শিল্পী গান গেয়ে যায় তত দিন তার কদর।

উল্লেখ্য, জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী বাদশা বুলবুল ও ডলি সায়ন্তনির ছোট বোন পলি সায়ন্তনি।

 

নাবা/ডেস্ক/হাফিজ