কর্মচঞ্চল মতলব ফেরীঘাটটি এখন শুধুই নিরবতা

মতলব : বাংলা ভাষার তরুণ কবি সুকান্ত ভট্টাচার্য লিখেছিলেন ‘আঠারো বছর বয়স’। কবির এই কবিতার বয়সের মত মতলব ফেরীঘাট ছিলো কর্মচঞ্চল। কিন্তু আজ সময়ের সাথে নিরব হয়ে পড়ে রয়েছে মতলব ফেরীঘাটটি। যারা এই পথে প্রতিদিন যাতায়ত করেছে তাদের মনে হয় কী যেন হারিয়ে গেল।

সরেজমিনে মতলব ফেরীঘাটের দুই পাশ ঘুরে দেখা যায়, আগের মত সেই হাক-ডাক নেই ফেরীঘাটে। কাউকে আর বসে থাকতে হয়না ফেরীর জন্য। আর থাকবেই বা কেন স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর মতলব ধনাগোদা নদীর উপর নির্মাণ হয়েছে মতলব সেতু। বছর শুরুর আগেই চলছে সেতুর উপর দিয়ে যান চলাচল।

এ যেন মতলব উত্তর ও দক্ষিণ উপজেলার সেতুবন্ধন। ঘাটের উভয় পাশের দোকানগুলোতে আগে রাত-দুপুর মানুষের ভীড় লেগেই থাকতো কিন্তু আজ চলছে নিরবতা। ঘাটের দক্ষিণ পাড়ের সকল দোকান বন্ধ হয়ে গেলেও চালু রয়েছে উত্তর পাড়ের কিছু দোকান। তবে আগের মত নেই বেচা-কিনি। অনেকে দোকান খুলে অলস সময় পাড় করে চলছে। এভাবেই বুঝি একদিন সকলের প্রয়োজন মিটে যাবে……..।

নাবা/এমএমএ/