কমলাপুরে শ্রমিক ধর্মঘট

বিভিন্ন অনিয়মের প্রতিবাদে ঘর্মঘট পালন করছে কমলাপুরের কন্টেইনার শ্রমিকরা। বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করা পণ্যের কন্টেইনার কমলাপুর পোর্ট থেকে ছাড় করানোর সময়ে আমদানি কারক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারিদেরকে নানা ভাবে হয়রানির অভিযোগে এ ধর্মঘট পালন করছে তারা।

কমলাপুর কাস্টমস হাউজে কাজ করা শ্রমিক নেতারা নাগরিক বার্তাকে জানায়, ঢাকায় কন্টেইনার আসার পরে আমদানির কারকের বিভিণ্ন ধরনের নথি এবং বিল জমা দেওয়ার সময়ে নানা ধরনের হয়রানি করা হয়। সময় মত কন্টেইনার ছাড় না করে অসময়ে ছাড় করে ফলে কন্টেইনার নিয়ে আমদানি কারক প্রতিষ্ঠানের শ্রমিকদের বিপদে পরতে হয়। বিভিন্ন সময়ে কৃত্তিম সংকট সৃষ্টি করা হয়। এছাড়াও কর্মঘন্টার বাইরে বেশি সময় ধরে কাজ করার ফলে শ্রমিকরা অসুস্থ হয়ে যায়। যার কারণে শ্রমিকরা আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের হয়ে মিডিয়া হিসেবে কাজ করা আমদানি কারক প্রতিষ্ঠান মর্নিং স্টার ইন্টারন্যাশনালের মালিক মোঃ বজলুর রহমান রানা নাগরিক বার্তাকে জানান, দেশে আসা বিভিন্ন পন্যের কন্টেইনার পোর্ট থেকে ছাড় করাতে অনেক হয়রানির শিকার হতে হয়। যার কারণে আমদানি কারকরা আমাদের কাছে অর্ডার নিয়ে আসতে চান না। পোর্টে কন্টেইনার ছাড় কারানোর দয়িত্বে থাকা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা নানা ধরনের হয়রানি করে।

শ্রমিকরা জানান, এছাড়াও রাত তিনটা-চারটার সময়ে কন্টেইনার ছাড় করার ফলে তখন গাড়ি এবং শ্রমিক পাওয়া যায় না। আবার এদেরকে পাওয়া গেলেও আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের গোডাউনে পণ্য খালাস করা যায় না। ফলে অতিরিক্ত ট্রাক ভাড়া গুনতে হয়।
তারা বলেন, এই ধরনের অনিয়ম এবং হয়রানি বন্ধে শ্রমিকরা ধর্মঘট পালন করছে। আমরা ক্ষতির সম্মুক্ষিন হলেও তাদের সাথে মালিক সমিতির পক্ষ থেকে সমর্থন জানিয়েছি।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে কমলাপুর পোর্টের ডিজিএম আহমেদুল করিম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘এখন অনেক ব্যস্ত আছি পরে কথা বলবো।’

নাবা/রাজু/নয়ন