এবার ধান ক্ষেতে রাব্বানিরা

 

স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে  কৃষকদের ধান কেটে দিলেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। আজ বুধবার (২২ মে) রাজধানীর অদূরে আমিনবাজার এলাকায় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে স্থানীয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ধান কেটেছেন।

এদিকে কৃষকদের ধান কেটে দেয়াসহ সব ধরনের সহযোগিতা করতে ছাত্রলীগের সব ইউনিটের নেতাকর্মীদের আহবান জানিয়ে মঙ্গলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে সংগঠনটি। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী স্বাক্ষরিত ওই বিজ্ঞপ্তির পরদিন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক নিজেই ধান কাটার কাজে নেমে পড়েন।

ধানের দাম কম হওয়ায় কাটার জন্য শ্রমিক নিতে হিমশিম খাচ্ছে কৃষক। ক্ষোভে দেশের বিভিন্ন এলাকার কৃষক পাকা ধানে মই দিয়েছেন। কোথাও ক্ষেতে আগুন ধরিয়ে জানান দিয়েছেন মনের দুঃখ। চলতি বছর ধানের বাম্পার ফলন হলেও ধানের কম হওয়ায় এমন পরিস্থিতি।

 

ছাত্রলীগের ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের এক জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক দেশজুড়ে ধান কাটা শ্রমিকের মজুরি তুলনামূলকভাবে বেশি হওয়ায় এবং মজুর স্বল্পতার কারণে বেশ কিছু অঞ্চলে কৃষকেরা পাকা ধান কাটতে হিমশিম খাচ্ছেন। এমতাবস্থায় বাংলার দুঃখী–অসহায় মানুষের শেষ ঠিকানা কৃষিবান্ধব নেত্রী, দেশরত্ন শেখ হাসিনার আদর্শিক ভ্যানগার্ড বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বদ্ধপরিকর। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সব ইউনিটকে (বিশ্ববিদ্যালয়/মহানগর/জেলা/উপজেলা/থানা/পৌর/ইউনিয়ন/ওয়ার্ড) নিজ নিজ এলাকায় কৃষকদের প্রয়োজনীয়তার নিরিখে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে পাশে থেকে ধান কাটাসহ সর্বাত্মক সহযোগিতার জন্য উদাত্ত আহবা জানানো হলো।

অন্যদিকে কৃষকদের সার্বিক সহযোগিতা করতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কৃষি শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক এস এম মাকসুদুর রহমান মিঠুকে সমন্বয়ক করে তিন সদস্যের বিশেষ কমিটিও গঠন করেছে ছাত্রলীগ।

সূত্র মতে, ধান কৃষকের এমন নাজেহাল পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এমনকি একজন জেলা প্রশাসকও কৃষকদের ধান কেটে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় এবার ধান কেটে দিলো ছাত্রলীগ।

নাবা/২২মে/তারেক