একনেকে সংশোধিত এডিপি অনুমোদন

২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য ১ লাখ ৬৫ হাজার কোটি টাকার সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে প্রায় ৯ হাজার ৬২০ কোটি টাকা ব্যয়ে স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা বা করপোরেশনের সংশোধিত এডিপিরও অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে বর্তমান সরকারের প্রথম জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সভায় এ অনুমোদন দেওয়া হয়।
প্রধানমন্ত্রী ও এনইসি চেয়ারপারসন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় সংশোধিত নতুন এডিপির আকার নির্ধারণ করা হয়। এতে পরিকল্পনামন্ত্রীসহ মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, মুখ্য সমন্বয়ক (এসডিজি), পরিকল্পনা কমিশনের সদস্যরা এবং বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সচিব ও সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান জানান, দেশজ সম্পদের লভ্যতা, বৈদেশিক অর্থায়ন ও সামষ্টিক অর্থনৈতিক অবস্থা বিবেচনায় এ সংশোধনী আনা হয়েছে।

এনইসি সভা শেষে প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি আরও জানান, অনুমোদিত সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির ১ লাখ ৬৫ হাজার কোটি টাকার মধ্যে স্থানীয় মুদ্রা ১ লাখ ১৪ হাজার কোটি টাকা এবং প্রকল্প সহায়তা ৫১ হাজার কোটি টাকা এবং স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান বা করপোরেশনের ৯ হাজার ৬২০ কোটি টাকার মধ্যে স্থানীয় মুদ্রা ৮ হাজার ৯৬০ কোটি টাকা এবং প্রকল্প সহায়তা ৬৬০ কোটি টাকা। সুতরাং ১ হাজার ৯১৬টি প্রকল্পের উন্নয়ন সহায়তাসহ সংশোধিত এডিপি’র আকার দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৭৪ হাজার ৬২০ কোটি টাকায়।

ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, মূল এডিপির আকার ছিল (স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার বরাদ্দ ছাড়া) ১ লাখ ৭৩ হাজার কোটি টাকা। তা থেকে ৮ হাজার কোটি টাকা কমিয়ে সংশোধিত এডিপির আকার নির্ধারণ করা হয়েছে ১ লাখ ৬৫ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে মূল এডিপিতে বৈদেশিক সহায়তা অংশে বরাদ্দ ছিল ৬০ হাজার কোটি টাকা। সেখান থেকে ৯ হাজার কোটি টাকা কমিয়ে সংশোধিত এডিপিতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৫১ হাজার কোটি টাকা।

নাবা/ডেস্ক/এনএম