আমিন বাজারে উচ্ছেদ অভিযান : রাজগ্রুপের কয়লা নিলামে

আমিন বাজার এলাকায় বিআইডব্লিউটিএ এর উচ্ছেদ অভিযানের অংশ হিসেবে রাজগ্রুপ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের বিপুল পরিমান কয়লা নিলামে তোলা হচ্ছে। এই কয়লার বাজার মূল্য আনুমানিক ৩ কোটি টাকা।

রাজগ্রুপ নামের প্রতিষ্ঠানটির তুরাগ নদী তীরের জায়গা দখল করে অবৈধ ভাবে রাখা কয়লা ইট এবং চুনা পাথর নিলামে তোলা হচ্ছে।

উচ্ছেদ স্থল থেকে বিআইডব্লিউটিএ এই নিলাম কার্যক্রম পরিচালনা করে। নিলামে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে দেলোয়ার হোসেন সকল অবৈধ মালামাল কিনে নেন।

বিআইডব্লিউটিএ’র পক্ষে এই নিলাম পরিচালনা করেন উচ্ছেদ অভিযানের নেতৃত্ব দেওয়া আরিফ উদ্দিন।

এর আগে গতকাল(বুধবার) বিআইডাব্লিউটিএ’র উচ্ছেদ অভিযানে ৫৫ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

বিআইডাব্লিউটিএ পরিচালিত উচ্ছেদ অভিযানের মধ্য দিয়ে দখলমুক্ত হচ্ছে বুড়িগঙ্গা ও তুরাগ নদীর তীরভূমি। অভিযানের দ্বিতীয় পর্যায়ের দ্বিতীয় পর্বের প্রথম দিনের অভিযান।

দিন ব্যাপী অভিযানে ছোট-বড় মিলিয়ে ৫৫টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। চলমান উচ্ছেদ অভিযানের ১৬ তম দিনে ‘ঢাকা উদ্যান’ ঘাট থেকে অভিযান শুরু করে বিআইডাব্লিউটিএ।

অভিযানের শুরুতেই ভাঙা পরে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মনির হোসেনের একটি দোকান, তিন তলা একটি ভবন এবং বাগানের সিমানা প্রাচির ।

স্থানীরা জানিয়েছে তিনি আদাবর থানা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি। ঢাকা উদ্যান এলাকায় নদীর ঘাটে তুরাগ নদীর দেড়শো ফুটেরও বেশি জায়গা দখল করে গড়ে তোলা স্থাপনা ভেঙে দেয় অভিযান পরিচালনাকারী সংস্থা।

জিপিএসের মাধ্যমে সীমানা নির্ধারণ করে নদীর জায়গায় গড়ে তোলা স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

একটি চার তলা ভবন, ২টি তিন তলা, ৫টি দোতলা, ৬টি এক তলা একটি অবৈধ ভবনে র্গামেন্স এর কিছু অংশ সহ ১৪টি পাকা স্থাপনা ভেঙে দেয়া হয়। এছাড়া ৩টি আধা পাকা ভবন, তিনটি সীমানা দেয়াল, ১৫টি পাথর ও বালির স্তুপ, ২০টি টিনের ঘরউচ্ছেদ করা হয় বলে নাগরিক বার্তাকে নিশ্চিত করেছেন বিআইডাব্লিউটিএ’র যুগ্ম পরিচালক এবং অভিযানে নেতৃত্বদানকারী কর্মকর্তা এ কে এম আরিফ উদ্দিন।

তিনি জানান, পূর্ব নির্দেশনা অনুযায়ী বুধবার সকাল ৯টায় ফের ঢাকা উদ্যান এলাকা থেকে পুনরায় উচ্ছেদ অভিযান শুরু হবে।

নাবা/সেন্ট্রাল ডেস্ক/কেএইচ/