আফগনিস্তানে ধসে পড়লো প্রাচীন দুর্গ

আফগানিস্তানের গজনীতে একটি প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী দুর্গ ধসে পড়েছে। এতে পুরাকীর্তি সংরক্ষণ নিয়ে আফগান সরকারের ভুমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তবে সরকারের দাবি, বৃষ্টির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ওই দুর্গটি ধসে পড়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, গজনীতে একটি প্রাচীন দুর্গ ধসে পড়ছে। এর আগেও এমন বেশ কয়েকটি দুর্গ ধসে পড়েছে। সরকারের দাবি, ভারী বৃষ্টির কারণেই এমন হয়েছে।

তবে সমালোচকরা বলছেন, সরকারের অবহেলাই এর মূল কারণ। গজনীর ইসলামিক ও প্রাক-ইসলামিক যুগের স্থাপত্য অনেক প্রশংসিত হয়েছে। তবে চলমান যুদ্ধে সেগুলো  অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

 আফগান তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাবের মোহাম্মান্দ বলেন, ওই দুর্গ এর আগেও বৃষ্টির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।  বৃষ্টি ছাড়াও দুর্গটি মহাসড়কের কাছে হওয়াতেও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

৭ শতাব্দী পর্যন্ত গজনীতে বৌদ্ধ সেন্টার ছিলো। তবে ৬৮৩ খ্রিষ্টাব্দতে সেখানে ইসলামের প্রসার বাড়ে। ১৩ শতকে চেঙ্গিস খানের মঙ্গোলিয়ান সেনাবাহিনী সেগুলো ধ্বংস করে দেয়।

ওই সেনাবাহিনীর নেতৃত্ব দেন চেঙ্গিস খানের ছেলে ওগেড়েই খান। ওআইসি এই শহরটিতে এশিয়ান সিটি অব ইসলামিক কালচার বলে স্বীকৃতি দিয়েছে।তবে তালেবানের সশস্ত্র সংগ্রামের কারণে শহরের এই প্রাচীন দুর্গগুলো বহিরাগতরা খুব একটা দেখার সুযোগ পান না। সুত্র: বিবিসি।

নাবা/ডেস্ক/তানিয়া রাত্রি