অবৈধ অভিবাসন ঠেকাতে উড়োজাহাজ বিক্রি

মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ নিজের উড়োজাহাজ বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।অবৈধ অভিবাসন ঠেকাতে এমন সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি। এই সিদ্ধান্ত এমন সময়ে নেয়া হল যখন শরণার্থী স্রোত ঠেকানোর জন্য যুক্তরাষ্ট্রর সঙ্গে তিনি নতুন চুক্তি করেছেন।

  চুক্তির মধ্যে রয়েছে, মেক্সিকো অবৈধ অভিবাসন বন্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেবে। বিনিময়ে মেক্সিকো যেসব পণ্য যুক্তরাষ্ট্রে রপ্তানি করবে, তার ওপর উচ্চ শুল্ক হার বসাবে না ট্রাম্প প্রশাসন।

এছাড়া চুক্তি অনুযায়ী মেক্সিকো ৬ হাজার ন্যাশনাল গার্ড পাঠাচ্ছে সীমান্তে। চুক্তির আরেকটি শর্ত হচ্ছে, মেক্সিকো থেকে যারা যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় প্রার্থনা করেছে, তাদের মেক্সিকোয় ফিরিয়ে আনতে হবে।

এ বিষয়ে বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট লোপেজ বলেন, চুক্তি মানতে যে বিপুল অর্থ খরচ হবে, তা যোগান দিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

২০১৬ সালে মেক্সিকোর প্রেসিডেন্টের জন্য কেনা হয় বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার। এটির আনুমানিক দাম ১৫ কোটি মার্কিন ডলার। প্রায় ২২ কোটি মার্কিন ডলার দিয়ে বিমানটি কেনা হয়েছিল।

প্রেসিডেন্টের উড়োজাহাজটি এখন ক্যালিফোর্নিয়ার এক ওয়্যারহাউজে রয়েছে। তবে গত ছয় মাসেও বিমান কেনার জন্য কোনো ক্রেতা পাওয়া যায়নি। সুত্র: বিবিসি।

নাবা/ডেস্ক/তানিয়া রাত্রি