গাজীপুরে ধরা খেলো ‘ভাই ব্রাদার’ গ্যাং

গাজীপুরে ধরা খেলো ‘ভাই ব্রাদার’ গ্যাং

গাজীপুরের রাজদিঘীর পাড় এলাকায় দুই কিশোর গ্যাং এর দ্বন্দের জেরে চাঞ্চল্যকর নুরুল ইসলাম ওরফে নুরু (১৬) হত্যার সাথে জড়িত মূল হোতাসহ কিশোর গাংয়ের ৬সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।  এ সময় হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত চাপাতি উদ্ধার করা হয়।

বুধবার ( ১১ সেপ্টেম্বর)  রাত থেকে আজ বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩ টা পর্যন্ত র‌্যাব-১ অভিযান চালিয়ে নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে।

এসময় তাদের নিকট হতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ২ টি চাপাতি  ১ টি ছুরি , ৫ টি মোবাইলফোনসহ নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে বলেও জানায় র‌্যাব। 

উল্লখ্যে, এলাকায় একাধিক কিশোর গ্যাং বিদ্যমান। এদের  মধ্যে ছোটখাটো বিষয় নিয়ে দ্বন্দ লেগেই থাকত। সিনিয়র গ্রুপের সদস্যকে ‘তুই’ বলে সম্মোধন করাকে কেন্দ্র করে এই হত্যাকান্ড ঘটে বলে জানা যায়। ঘটনার দুই দিন পূর্বে  নুরুল ইসলামের ‘দীঘিরপাড়’ গ্রুপের ৬/৭ জন সদস্য স্থানীয় বালুর মাঠ এলাকায় আড্ডা দেওয়ার সময় একই এলাকার রাসেল এর “ভাই-ব্রাদারস”গ্রুপের সাথে বাকবিতন্ডায় লিপ্ত হয়।

একপর্যায়ে তাদের মধ্যে হাতাহাতি হয়। জুনিয়র গ্রুপের কাছে লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনায় রাসেলের “ভাই-ব্রাদারস” গ্রুপের সদস্যরা প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠে এবং উপযুক্ত সুযোগ খুঁজতে থাকে। এরই প্রেক্ষিতে ঘটনার দিন “ভাই-ব্রাদারস” গ্রুপের ১০/১২ জন মিলে ধারালো অস্ত্র নিয়ে ‘দীঘিরপাড়’ গ্রুপের উপর অকস্মাৎ চড়াও হয়।

এ সময় ভিকটিম নুরুল তাদের আক্রমন থেকে বাচাঁর জন্য পাশের পুকুরে ঝাঁপিয়ে পড়ে ও অন্যান্যরা পালিয়ে যায়। “ভাই-ব্রাদারস” গ্রুপের সদস্যরা অন্যান্যদের ধরতে না পেরে ভিকটিম নুরুলকে পুকুর থেকে তুলে ধারালো চাপাতি দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে হত্যা করে পালিয়ে যায়।




নাবা/ডেস্ক/হাফিজ

রিলেটেড নিউজঃ

    মতামত দিন