চাঁদপুরে ইলিশের বাজার ফাঁকা

চাঁদপুরে ইলিশের বাজার ফাঁকা
চাঁদপুরকে বলা হয় ইলিশের বাড়ি। ইলিশের জন্য দেশব্যাপী পরিচিত এই চাঁদপুর। তাই চাঁদপুরের ইলিশের বাজার দেশের মধ্যে অন্যতম। বছরের এই ইলিশ মৌসুমে পা ফেলারও জায়গা মেলে না চাঁদপুরের বৃহৎ ইলিশের বাজার বড়স্টেশন আড়তে। 

পাইকারি ও খুচরা দরে ইলিশ কিনতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে চাঁদপুরের এ বাজারে আসেন ক্রেতারা।


ইলিশের এই মৌসুমে দম ফেলার সুযোগ মেলেনা বিক্রেতাদের। পাশাপাশি ইলিশের দামও থাকে তুলনামূলক কম। তবে এ বছর ইলিশ মৌসুমে তেমন ভিড় দেখা যায়নি চাঁদপুরের বড়স্টেশন ইলিশের আড়তে। কমেনি ইলিশের দামও।

আজ বৃহস্পতিবার ইলিশের বৃহত্তর বাজার চাঁদপুরের বড়স্টেশন আড়ৎ ঘুরে এমন চিত্রই দেখা যায়। বড়স্টেশন আড়তে বড় আকারের এক থেকে দেড় কেজি ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে কেজিপ্রতি ১৫০০ থেকে ২০০০ হাজার টাকায়। মাঝারি আকারের ইলিশ ৮০০ গ্রাম থেকে এক কেজির কম ওজনের ইলিশ কেজিপ্রতি ১০০০ থেকে ১২০০ টাকায়, আর ছোট আকারের অর্থাৎ ৫০০ গ্রাম থেকে ৮০০ গ্রামের নিচে পর্যন্ত ইলিশ কেজিপ্রতি ৮০০ থেকে ১০০০ হাজার টাকায়।



ইলিশের বাজার নিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতার সাথে কথা হয় নাগরিক বার্তার। অন্যান্য বছরের এ সময় যেখানে ক্রেতা-বিক্রেতায় জমজমাট থাকে বড়স্টেশনের ইলিশের বাজার, পাশাপাশি দামও থাকে তুলনামূলক কম, সেখানে এ বছর এর বিপরীত হওয়ার কারণ জানতে চাওয়া হয় তাদের কাছে।

চাঁদপুর মৎস্য বনিক সমবায় সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব মিজানুর রহমান কালু ভূইয়া নাগরিক বার্তাকে জানান, পদ্মায় ইলিশ না থাকায় চাঁদপুরের জেলেদের জালে ধরা পড়ছে না ইলিশ। তাই ইলিশ আমদানি কম। তবে আজকের পর থেকে আমদানি বাড়তে পারে।


দাম বেশির কারণ জানতে চাইলে তিনি নাগরিক বার্তাকে বলেন, দাম বেশিও না কমও না! ক্রেতাদের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যেই আছে। তবে ইলিশের আমদানি কম হওয়ায় দাম একটু বেশি।

ইলিশ বিক্রেতা ইমাম হাসান নাগরিক বার্তাকে বলেন, পদ্মা-মেঘনার ইলিশ কম থাকায় ইলিশের দাম বেশি। তবে অন্যান্য নদী থেকে আসা ইলিশের দাম একটু বেশি। গত বছরের তুলনায় ইলিশের আমদানি নেই।

ঢাকা থেকে আসা ইলিশ ক্রেতা আসাদুজ্জামান নাগরিক বার্তাকে বলেন, নদীর তাজা ইলিশ কিনতে ঢাকা থেকে এসেছি। গত বছরও চাঁদপুর থেকে ইলিশ কিনেছি। এবার ইলিশের দাম অনেক বেশি। নেই পদ্মার ইলিশও। 

তিনি আরো বলেন, সকালে ঢাকা থেকে এসেছি। ১০ কেজি ইলিশ ১৫০০০টাকায় কিনেছি।




নাবা/ডেস্ক/কেএইচ/

রিলেটেড নিউজঃ

    মতামত দিন