ব্রেক্সিট ইস্যু: ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের হাতে চার বিকল্প

  • প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:১৭
ব্রেক্সিট ইস্যু: ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের হাতে চার বিকল্প

ব্রিটিশ পার্লামেন্টে ব্রেক্সিট নিয়ে এ পর্যন্ত ছয়বার বিভিন্ন প্রস্তাবে অনুষ্ঠিত হওয়া ভোটে হেরে গেছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ফলে স্বাভাবিকভাবেই তিনি পার্লামেন্ট স্থগিত করে দিতে পারেন, সাময়িক সময়ের জন্য হলেও, তাতে আশ্চর্য হবার কিছু নেই।

তবে বছরের এই সময়টাতে সাধারণত রাজনৈতিক দলগুলো নিজেদের সম্মেলন করে থাকে, ফলে পার্লামেন্ট এই সময়ে সাধারণত বন্ধই থাকে। কিন্তু পাঁচ সপ্তাহের মত দীর্ঘদিন বন্ধ থাকেনা , এবং বর্তমান পরিস্থিতিতে সেটা আশা করাও উচিত নয় যে এত দীর্ঘসময় ধরে পার্লামেন্ট বন্ধ থাকবে।

ব্রিটিশ গণতন্ত্রকে 'চুরমার' করে দেয়ার জন্য মি. জনসনকে দোষ দিচ্ছেন বিরোধী নেতারা। তারা বলছেন, কার্যত এর মাধ্যমে দলের এমপিদের বিরোধীদের সাথে জোট বাধা ঠেকানোর চেষ্টা করছেন, যাতে সময় স্বল্পতার কারণে তার চুক্তিহীন ব্রেক্সিট আটকাতে না পারেন তারা।

তবে এটা নিঃসন্দেহ যে, এর মাধ্যমে মি.জনসন কিছু বাড়তি সময় হাতে পাবেন। কিন্তু তিনি ঠিক কী করতে যাচ্ছেন? বিবিসির রাজনীতি বিষয়ক সংবাদদাতা রব ওয়াটসন বলছেন,মি. জনসনের হাতে মূলত চারটি বিকল্প উপায় রয়েছে, এর যেকোন একটিকে তার বেছে নিতে হবে।

* আইন অমান্য করে ৩১শে অক্টোবরের মধ্যে  ইইউ  ত্যাগ করা

 

* দ্রুতএকটি চুক্তি করা

 

* পদত্যাগকরা

 

* ইইউ ছাড়ার জন্য সময় বাড়িয়ে নেয়।

 

এখন দেখা যাক ব্রিটেন এবং তার জনগণের জন্য এইসব বিকল্পের মানে কী? সুত্র: বিবিসি।

নাবা/ডেস্ক/তানিয়া রাত্রি

    মতামত দিন