লঞ্চে ধর্ষণ: প্রেমিকাকে রেখে নদীতে প্রেমিকের ঝাপ

লঞ্চে ধর্ষণ: প্রেমিকাকে রেখে নদীতে প্রেমিকের ঝাপ

ঢাকা থেকে চাঁদপুরগামী সকাল সাড়ে ৯টায় ছেড়ে আসা আব-এ জমজম-১ লঞ্চে প্রেমিক তার প্রেমিকাকে ধর্ষণ ও মারধর করেছে। প্রেমিকার চিৎকারে লঞ্চের যাত্রীরা ছুটে এলে প্রেমিক যুবকটি লঞ্চ থেকে নদীতে ঝাঁপিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। পরে তাকে নদী থেকে উদ্ধার ও আটক করে চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে আজ বুধবার সকাল ১১টায় মুন্সীগঞ্জে। ঘটনা সূত্রে জানা যায়, ঢাকা সবুজবাগ থানা এলাকার রাজারবাগ কালীবাড়ি এলাকার মো. মামুন হোসেন তালুকদারের ছেলে মো. শুভ তালুকদারের সঙ্গে ফেসবুকের মাধ্যমে খিলগাঁও থানা এলাকার তিলপাতা এলাকার বাসিন্দা কামাল হোসেনের মেয়ে এক সন্তানের জননীর পরিচয় হয়। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গতকাল শুভ তালুকদার প্রেমিকা ফারজানা আক্তার ইভাকে ফোন করে সদরঘাট এলাকায় সকালে নিয়ে যায়।

পরে তারা আব-এ জমজম-১ লঞ্চে ৩১৩ নম্বর কেবিন ভাড়া নেয়। লঞ্চটি সকাল সাড়ে ৯টায় সদর ঘাট থেকে ছাড়ার পর ১১টার দিকে মুন্সিগঞ্জ অতিক্রম করাকালে ওই কেবিনের মধ্যে হট্টগোলের সৃষ্টি হলে লঞ্চের যাত্রী ও স্টাফরা সেখানে ছুটে যায়। পরে দীর্ঘ সময় চেষ্টা করলেও ৩১৩নং কেবিনের দরজা কেউ খুলেনি। অনেক সময় পর প্রেমিক শুভ তালুকদার বিবস্ত্র অবস্থায় কেবিনের দরজা খুলে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। লঞ্চের স্টাফরা তাকে উদ্ধার করতে লঞ্চ ঘুরিয়ে তাকে নদীর মধ্যেই বেরিকেট দেয়। তখন লঞ্চ স্টাফরা বয়া ও লাইফ জ্যাকেট পড়ে নদীতে নেমে শুভকে উদ্ধার করে।

এই ঘটনায় লঞ্চ থেকে এক যাত্রী ৯৯৯ এ কল করলে চাঁদপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক সাদেকুর রহমান লঞ্চ টার্মিনাল ঘাট থেকে শুভ ও মেয়েটিকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। বর্তমানে শুভ তালুকদার ও মেয়েটি চাঁদপুর মডেল থানার হেফাজতে রয়েছে।

চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ নাসিম উদ্দিন নাগরিক বার্তাকে জানান, মেয়েটিকে সরকারি জেনারেল হাসপাতালে মেডিকেলে পরীক্ষা করানো হয়েছে। আহত প্রেমিক শুভকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।


নাবা/ডেস্ক/তারেক

রিলেটেড নিউজঃ

    মতামত দিন