প্রশিক্ষণরত এএসপি’র বেপরোয়া আচরণ, বহিষ্কার

প্রশিক্ষণরত এএসপি’র বেপরোয়া আচরণ, বহিষ্কার

শিবগঞ্জ সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) কুদরত-ই-খুদা শুভকে বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তার বিরুদ্ধে এ শাস্তি এসেছে। শুভর বিরুদ্ধে অভিযোগ, আহম্মেদ সাব্বির নামের এক মালামাল সরবরাহকারীকে পুলিশ লাইন্সের অফিসার্স মেসে ডেকে লাঠিপেটা, এক আনসার সদস্য ও জেলা প্রশাসকের গাড়ি চালককে মারধর করেছেন।

প্রশিক্ষণ দেওয়া দফতর পল্লী উন্নয়ন একাডেমি (আরডিএ) বগুড়ার মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) আমিনুল ইসলাম তাকে এক বছরের জন্য বহিষ্কারের বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন।

তবে এএসপি শুভ বলছেন, তাকে বহিস্কার করা হয়নি। বাবার অসুস্থতার কারণে তিনি প্রশিক্ষণ থেকে অব্যাহতি নিয়েছেন।

অতিরিক্ত সচিব আমিনুল ইসলাম জানান, এএসপি শুভর বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট পাঁচটি অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি। তিন সদস্যের শৃঙ্খলা কমিটির সুপারিশে তাকে এক বছরের জন্য প্রশিক্ষণ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। 

তিনি আরো বলেন, যেসব অভিযোগ শুভর বিরুদ্ধে এসেছে, তাতে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তির ব্যবস্থাও নেওয়া যেত। কিন্তু অন্য প্রশিক্ষণার্থীদের সতর্ক করতে বড় অপরাধেও তাকে লঘু শাস্তি দেওয়া হয়েছে।

শুভর বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো হচ্ছে- প্রশিক্ষণ চলাকালে গত ১২ মে রাতে পুলিশ লাইন্স অফিসার্স মেসে মালামাল সরবরাহকারী ঠিকাদার আহম্মেদ সাব্বিরকে ডেকে পাঠান তিনি। সাব্বির তার ব্যবসায়ীক অংশীদার লেবুর পাওনা টাকা না দেওয়ায় তাকে ডাকা হয়। সাব্বির তখন কয়েকদিন পরে টাকা দেওয়ার কথা জানালে ক্ষেপে যান শুভ। তার গার্ড ও ড্রাইভারকে দিয়ে সাব্বিরকে লাঠিপেটা করান। মার খেয়ে একপর্যায়ে সাব্বির মেঝেতে লুটিয়ে পড়লে পুলিশ লাইন্স থেকে বাইরে এনে রিকশায় তুলে দেওয়া হয়। প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে আহত সাব্বির রাতেই সদর থানায় যান অভিযোগ করতে। কিন্তু উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দেখে থানা সাব্বিরের অভিযোগ গ্রহণ করেনি। নিরূপায় হয়ে পরের দিন পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন ঠিকাদার সাব্বির। পুলিশ সুপার বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করেন। এছাড়া জেলা প্রশাসকের গাড়ি চালককেও মারধরের অভিযোগ আছে এএসপি শুভর বিরুদ্ধে।

বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা সাংবাদিকদের বলেছেন, এএসপি শুভকে বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ থেকে বহিষ্কারের খবর তিনি শুনেছেন। তবে এটা প্রশিক্ষণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরীণ বিষয়।

বগুড়া পল্লী উন্নয়ন একাডেমির দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে, বিসিএস ক্যাডার বিভিন্ন ব্যাচের ছয় মাসব্যাপী বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ মার্চ মাসে শুরু হয়। আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর প্রশিক্ষণ শেষ হওয়ার কথা। প্রশিক্ষণ চলমান অবস্থায় তার বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা ভঙ্গের এসব অভিযোগ ওঠে। শুভ প্রায়ই দেরি করে যান প্রশিক্ষণে। এক আনসার সদস্য দেরি নিয়ে কথা বললে তাকে গালিগালাজ, মাদক দিয়ে ধরিয়ে দেওয়ার হুমকি ও তদবিরের মাধ্যকে তাকে বদলিও করে দেন শুভ।


নাবা/ডেস্ক/তারেক

রিলেটেড নিউজঃ

    মতামত দিন